বিনোদন, সংস্কৃতি ও সাহিত্য 

জীবনানন্দ সভাঘরে সংবর্ধিত হলেন বাংলাদেশের সম্মানিত সাত সাহিত্যিক

শেয়ার করুন
  • 1.6K
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা : আন্তর্জাতিক সাহিত্য উৎসব উপলক্ষে পশ্চিবঙ্গ বাংলা একাদেমির জীবনানন্দ সভাঘরে এক বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানে মানপত্র, উপহার ও ” ভাষাস্মারক-২০১৮” দিয়ে সংবর্ধিত করা হয় প্রতিবেশি রাষ্ট্র বাংলাদেশের সাতজন সাহিত্যককে।উত্তর কলকাতা বাংলাভাষা চর্চাকন্দ্রের উদ্যোগে আয়োজিত দুদেশের সাহিত্য সমন্বয়ের এদিনের ব্যতিক্রমী অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি শংসাপত্র প্রাপ্ত প্রবীন স্বাধীনতা সংগ্রামী পূর্ণেন্দু প্রসাদ ভট্টাচার্য, ইন্টারন্যাশন্যাল মাদার ল্যাঙ্গুয়েজ অ্যাসোসিয়েশনের সম্পাদক বদরুদ্দোজা হারুন এবং বিশিষ্ট সাহিত্যিক, নাট্যকার, পরিচালক জয়ন্ত রসিকের উপস্থিতিতে  সাহিত্য সম্মানে সম্মানিত হন ক্রমে নাজিব ওয়াদুদ, মাহফুজুর রহমান আখন্দ, ফজলুল হক তুহিন, দেওয়ান মোহাম্মদ সামসুজ্জামান, সোহেল মোহম্মদ ফখরুদ্দীন, ভাস্কর ডি .কে.দাস মামুন এবং বাবুলকান্তি দাস।

রাজশাহী এবং চট্টগ্রামের উপরোক্ত সম্মানিত সাহিত্যকগন নিজেদের অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে রবীন্দ্র নজরুল এবং আল মাহমুদের সাহিত্য প্রতিভার কথা তুলে ধরেন। তাঁরা প্রত্যেকই বাংলাভাষার প্রচার প্রসার মর্যাদা রক্ষার জন্য উত্তর কলকাতা বাংলা ভাষা চর্চাকেন্দ্রের এহেন উদ্যোগের ভূয়সী প্রশংসা করেন।এর আগে ইদানিং নাট্যগোষ্ঠীর সঙ্গীত শাখার শিল্পীদের পরিবেশিত উদ্বোধনী সঙ্গীতের পর স্বাগত ভাষণ প্রদান করেন সংস্থার সভাপতি জয়ন্ত রসিক।

কলকাতা রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলার বিভাগীয় প্রধান ড. সুরঞ্জন মিদ্দে, মেদিনীপুর ময়না কলেজের অধ্যক্ষ ড. অমরেন্দ্রনাথ বর্ধন, সাহিত্য উৎসব পত্রিকার সম্পাদক ড. বিপ্লব মজুমদারের উপস্থিতিতে অনুষ্ঠানে সংস্থার মুখপত্র ” সাহিত্য সমন্বয়ের” আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়। অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে পরিবেশিত হয় বিভিন্ন কবি শিল্পীর একগুচ্ছ কবিতা ও গান।

কিশোরী সৌরিয়া সিরিন এবং কিশোর অয়ন দাসের পরিবেশিত দুটি আবৃতি অনুষ্ঠানে অন্যমাত্রা এনে দেয়। সমগ্র অনুষ্ঠান সুচারু রূপে সঞ্চালনা করেন গল্পকার শেখ আব্দুল মান্নান ও কবি মানিক দে।

 


শেয়ার করুন
  • 1.6K
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment