দেশ 

স্বামী মহিলার প্রভু নন তাঁদের উপরে জোর খাটানোর কোনও অধিকার নেই : সুপ্রিম কোর্ট

শেয়ার করুন
  • 5
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : বিবাহ-বর্হিভূত নারী-পুরুষের সর্ম্পক অপরাধ নয়, জানিয়ে দিল সুপ্রিম কোর্ট। এদিন শীর্ষ আদালতের রায়ে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৪৯৭ ধারাকে অসাংবিধানিক বলে ঘোষিত হল। মুখ্য বিচারপতি দীপক মিশ্র বলেন, “এবিষয়ে কোনও সন্দেহ নেই যে পরকীয়া সম্পর্ক বিবাহ বিচ্ছেদের কারণ হতে পারে। কিন্তু এটা অপরাধ নয়।” প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন পাঁচ সদস্যের বেঞ্চ এই রায় ঘোষণা করেছে। কারণ মহিলাদের আত্মমর্যাদাকে তা ক্ষুণ্ণ করে। একই সঙ্গে সংবিধানের ১৪ নম্বর ধারায় দেওয়া অধিকারকে ক্ষুণ্ণ করছে। তাই বলে পরকীয়াকে অপরাধ বলে বিবেচনা করা যায় না। যদি না তা ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩০৬ নম্বর ধারা, যা আত্মহত্যায় প্ররোচনার জন্য তৈরি, তার সঙ্গে সম্পর্কিত হয়।

এদিন মুখ্য বিচারপতি দীপক মিশ্র রায় ঘোষণা করতে গিয়ে বলেন, নিশ্চিত করে এটা বলে নেওয়া প্রয়োজন যে স্বামী মহিলার মাস্টার নন। তাঁদের উপরে জোর খাটানোর কোনও অধিকার তাঁদের নেই। পাঁচ বিচারপতির মধ্যে তিনজনের মতে পরকীয়া বা ব্যভিচারকে অপরাধ হিসাবে তুলে ধরার অর্থ পিছনের দিকে হাঁটা। বেশিরভাগ দেশই এই আইনকে অবলুপ্ত করে দিয়েছে বলে আদালত জানিয়েছে।

বৃহস্পতিবার প্রধান বিচারপতি বলেন, “যে কোনও আইন যা ব্যক্তির মর্যাদা, সভ্য সমাজে নারীর প্রতি ন্যায়বিচারে প্রভাব ফেলে তা সংবিধানের উপর রাগের কারণ হয়ে উঠতে পারে।”

 

 

 


শেয়ার করুন
  • 5
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment