কলকাতা 

আদালত যদি দেখে কোথাও বৈষম্য হচ্ছে তাহলে তা মানবে না, হস্তক্ষেপ করবেই,ডিএ মামলায় রাজ্যকে তোপ হাইকোর্টের

শেয়ার করুন
  • 64
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বিশেষ প্রতিবেদক : মঙ্গলবার ডিএ মামলায় আবার রাজ্যকে তীব্র ভর্ৎসনা করল কলকাতা হাইকোর্টের ডিভিসন বেঞ্চ । মঙ্গলবার ডিএ মামলার শুনানীতে রাজ্যের অ্যাডভোকেট জেনারেল কিশোর দত্তের কাছে ডিভিসন বেঞ্চ জানতে চান, দিল্লি,মুম্বই ও চেন্নাইতে কর্মরত রাজ্য সরকারের কর্মচারীরা কীসের ভিত্তিতে ডিএ বেশি পায়। অ্যাডভোকেট জেনারেল কিশোর দত্ত বলেন , ওই তিন শহরের মূল্যবৃদ্ধির মাপকাঠিতে তাদেরকে ডিএ দেওয়া হয়। আর কলকাতার মূল্যবৃদ্ধির উপর নির্ভর করে এখানে ডিএ দেওয়া হয় । তাছাড়া সরকারের বিবেকের উপর নির্ভর করেও এখানে ডিএ দেওয়া হয়। এজির মুখে এই কথা শুনে বিচারপতি দেবাশিষ করগুপ্ত ও বিচারপতি শেখর ববি শরাফ তীব্র ভাষায় এজিকে আক্রমণ করে বলেন, পরাধীন ভারতে ভেদাভেদ ছিল, কিন্ত স্বাধীন ভারতে ভেদাভেদ কাম্য নয়। আর আদালত যদি দেখে কোথাও বৈষম্য হচ্ছে তাহলে অবশ্যই আদালত হস্তক্ষেপ করবে বলে দুই বিচারপতি জানিয়ে দেন।

বিচারপতি ববি শেখর শরাফ বলেন , ডিএ দিয়ে সরকারি কর্মচারীরা গাড়ি-বাড়ি কেনেন না। এটা খাদ্য ও ওষুধ পত্রের মত কিছু প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র কিনে থাকে । তাহলে কেন এ বিষয়ে এত ভেদাভেদ রয়েছে সরকারের । তিনি বলেন,স্বাধীন দেশের আদালত যদি দেখে কোথাও বৈষম্য হচ্ছে আদালত তা মানবে না। আর সে বিষয়ে হস্তক্ষেপ করবেই।

বিচারপতিরা এজির কাছে জানতে চান ,দিল্লি ও মুম্বইয়ে কর্মরত রাজ্য সরকারের কর্মচারীদের যে ডিএ দেওয়া হয় তা আইন সম্মত কিনা ? এ প্রশ্নের উত্তরে এজি বলেন, ডিএ দেওয়ার ক্ষেত্রে কোন নির্দিষ্ট আইন নেই। এটা সরকারের বিবেকের উপর নির্ভর করে।  এর উত্তরে বিচারপতি শরাফ বলেন , এটা হতে পারে না । একটি নির্দিষ্ট আইন থাকতে হবে।

এরপর এজি হাইকোর্টের ডিভিসন বেঞ্চের কাছে আরও কিছুটা সময় দেওয়ার জন্য অনুরোধ করেন। তখন বিচারপতিরা বলেন আর বেশি সময় দেওয়া যাবে না। এজি ডিভিসন বেঞ্চকে বলেন তাহলে আদালতই সিদ্ধান্ত নিক। এর উত্তরে বিচারপতি দেবাশিষ করগুপ্ত বলেন, এরজন্য নির্বাচিত সরকার আছে । তাহলে কেন আদালতকে হস্তক্ষেপ করতে হবে? পুলিশ দিয়ে সরকার চালালে যুক্তির দরকার হয় না । কিন্ত জনদরদী সরকার চালাতে হলে অবশ্যই যুক্তির প্রয়োজন রয়েছে। আগামী ১৭ জুলাই আবার এই ডিভিসন বেঞ্চে ডিএ মামলার শুনানী হবে।


শেয়ার করুন
  • 64
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment