জেলা 

মাফিয়া রাজ মানব না,প্রশাসনকে বলছি কঠোর পদক্ষেপ নিতে : মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

শেয়ার করুন
  • 14
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব প্রতিনিধি : জমি মাফিয়াদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। জমি মাফিয়াদের সঙ্গে পুলিশ ও ভূমি দপ্তরের কর্মীদের যোগাযোগ আছে বলে তিনি মন্তব্য করেন।জমি দখলকারীদের সঙ্গে যেসব সরকারী আধিকারিকদের যোগসূত্র আছে তাদের কাউকে ছাড়া হবে না বলে স্পষ্ট করে দেন মুখ্যমন্ত্রী। আজ শিলিগুড়ির উত্তরকন্যায় আলিপুরদুয়ার জেলার প্রশাসনিক বৈঠকে যোগ দেন মুখ্যমন্ত্রী। সেই বৈঠকেই জমি দখলের কথা তিনি তোলেন। বলেন, “জমি দখল করছে কিছু মাফিয়া। সরকারি জমি ও ব্যক্তিগত জমি দখল করছে। মাফিয়ারাজ চলছে। আমাদের দলও এসব চাই না। প্রশাসনকে বলছি, কঠোর পদক্ষেপ নিন।”

মুখ্যমন্ত্রী সরকারী কর্মচারীদের  “কিছু ক্ষেত্রে পুলিশ ও ভূমি দপ্তরের কর্মীরা এসবে যুক্ত আছেন বলে অভিযোগ আসছে। কাউকে ছাড়ব না। এত টাকা কী করবেন? অসৎ পথে এত টাকার প্রয়োজনই বা কোথায়? কী খাবেন? কত টাকা লাগে জীবনযাপনে? কয়লা হোক বা জমি। মাফিয়ারাজ মানব না।”দার্জিলিং ও জলপাইগুড়িতে জমি দখলের অভিযোগ নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, দার্জিলিং ও জলপাইগুড়িতে অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত হচ্ছে। পুলিশকে নির্দেশ দিচ্ছি, অ্যান্টি করাপশন ব্রাঞ্চকে সক্রিয় করে হাতেনাতে এসব ধরুন। কাউকে প্রশয় দেবেন না।
মুখ্যমন্ত্রী বলেন, সরকারি জমি জনগণের সম্পত্তি। উন্নয়নের কাজে লাগে। তা বেহাত হয়ে যাচ্ছে। যারা এসব করছে তাদের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ করতে হবে, গ্রেপ্তার করুন। আফিসাররা এসবে যুক্ত থাকলে তাঁদেরও ছাড়বেন না।উত্তরবঙ্গ থেকে দীর্ঘদিন ধরে অভিযোগ আসছিল যে জমি মাফিয়াদের সঙ্গে পুলিশ ও ভুমি দপ্তরের কর্মচারীদের একাংশের অশুভ যোগাযোগের ফলে অনেক সরকারী জমিও বেহাত হয়ে যাচ্ছে। আর সাধারন মানুষের জমি তো জোর করেই কেড়ে নেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এই পরিপ্রেক্ষিতে মুখ্যমন্ত্রী আজকের ঘোষণা নিঃসন্দেহে গুরুত্বপূর্ন।

 


শেয়ার করুন
  • 14
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment