জেলা 

ফারহাদের সঙ্গে আমার সর্ম্পক দীর্ঘদিনেরঃরহিমা মন্ডল

শেয়ার করুন
  • 5
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

জামিতুল ইসলামঃ আমরা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সৈনিক।তাঁর আদেশ আমাদের কাছে শেষ কথা। তাঁর নীতি-আদর্শ  রাজনীতিতে আমাদের একমাত্র পথ। তাছাড়া বিধায়ক হিসেবে আমার প্রথম কাজ হবে দলের পতাকা বহন করে চলা। দলের সাফল্য আমাদের সাফল্য।  শনিবার একটি দৈনিক পত্রিকায় প্রকাশিত এক সংবাদ ঘিরে রাজ্য রাজনীতিতে চাঞ্চল্য পড়ে যায়। তা নিয়ে প্রশ্ন করা হলে দেগঙ্গার বিধায়ক রহিমা মন্ডল এই মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, এটা সিপিএমরা কুৎসা রটাচ্ছে। এ ধরনের নেংরামি কাজ আমি জীবনে কখনও করিনি। আমি দলকে ভালবাসি।গত পঞ্চায়েতে এই এলাকায় বেশিরভাগ পঞ্চায়েত বামেদের দখলে ছিল,আমি বিধায়ক হওয়ার পর এলাকার মানুষের সঙ্গে নিবিড় সর্স্পক গড়ে তুলেছি। তাদের সুখে-দুঃখে সঙ্গী হয়েছি। এখন আমি জোরের সঙ্গে বলতে পারি  দেগঙ্গা এলাকার প্রতিটি পঞ্চায়েত,পঞ্চায়েত সমিতি এবং জেলা পরিষদ আমরা পাব। ফারহাদের সঙ্গে আমার সর্ম্পক দীর্ঘদিনের। তাঁর হয়ে বেশ কয়েকটি এলাকায় প্রচার করেছি। আর এলাকার বিধায়ক হিসেবে আমার নিজের দায়িত্ব হল ফারহাদকে জেতানো। এই কাজটি আমি করছি। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সৈনিক হিসেবে আমার এলাকার সব প্রার্থীকে জেতানো আমাদের মৌলিক কর্তব্য। তিনি বললেন,আমার বিরুদ্ধে বিরোধীরা অপপ্রচার করে মানুষের মধ্যে বিভেদ তৈরি করতে চাইছে। সেটা সম্ভব হবে না,মানুষ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে আছেন এবং থাকবেন। আর তাঁর প্রার্থী হিসেবে দেগঙ্গায় আমাকে বা ফারহাদকে কেউ হারাতে পারবে না।


শেয়ার করুন
  • 5
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment