কলকাতা 

দেশে একমাত্র বিজেপি-র সঙ্গে লড়াই করার ক্ষমতা রাখে কংগ্রেস , যাঁরা ধর্মনিরপেক্ষতার কথা বলছেন তাঁদের উচিত কংগ্রেসের পাশে দাঁড়ানো : সোমেন মিত্র

শেয়ার করুন
  • 38
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সোমেন মিত্র শুক্রবার বারবেলায় (২১/৯/২০১৮) প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতির দায়িত্ব পেয়েছেন এআইসিসি পক্ষ থেকে ২০১৯এর লোকসভা নির্বাচনের আগে তাঁর প্রতি আস্থা রেখেছেন রাহুলসোনিয়া গান্ধী রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা মনে করছেন প্রদেশ কংগ্রেসের বর্তমান যা অবস্থা তাতে হয়তো সাংগঠনিক অবস্থার দ্রূত উত্থান সম্ভব হবে না। তবে কংগ্রেস সোমেন মিত্রের মত একজন সাংগঠনিক নেতার হাত ধরে যে রাজ্যে সংগঠন মজবুত করতে পারবে তা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই যাইহোক সোমেনবাবু প্রদেশ কংগ্রেসের সভাপতি হিসেবে সফল হবেন এই প্রত্যাশা রাজ্যের সাধারণ মানুষের মনে রয়েছে বাংলার জনরব তাঁর সাফল্য কামনা করছে তিনি প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি হবেন এই প্রত্যাশা নিয়ে বাংলার জনরব তাঁর সাক্ষাৎকার নেয়নি তিনি একজন প্রবীণ রাজনীতিবিদ হিসেবে বাংলার রাজনীতির নাড়িনক্ষত্র সম্পর্কে অবহিত আছেন সেই প্রেক্ষাপটেই আমরা তাঁর সাক্ষাৎকার নিয়েছিলাম তবে আমরা জানতাম অধীর চৌধুরিকে প্রদেশ কংগ্রেসের সভাপতির পদ থেকে সরানো হলে সেই পদে সোমেন মিত্র ছাড়া অন্য কাউকে দায়িত্ব এআইসিসি দেবে না।

যাইহোক বিশ্বকর্মা পুজোর দিনেই সোমেনবাবু বাংলার জনরবকে একান্তে বিশাল সাক্ষাৎকার দিয়েছেন সেই সাক্ষাৎকারের চারটি কিস্তি ইতিমধ্যে প্রকাশ পেয়েছে আজ পঞ্চম কিস্তি। সাক্ষাৎকারটি নিয়েছেন বুলবুল চৌধুরি

প্রশ্ন : কংগ্রেসের জাতীয় নেতারা প্রত্যাশা করছেন আগামী লোকসভায় কংগ্রেস ঘুরে দাঁড়াবে । কিন্ত প্রদেশ কংগ্রেস কী পারবে ঘুরে দাঁড়াতে ?

সোমেন মিত্র : সর্বভারতীয় স্তরে কংগ্রেস ঘুরে দাঁড়ালে, পশ্চিমবঙ্গের কংগ্রেসও ঘুরে দাঁড়াবে ।

প্রশ্ন : আগামী লোকসভা নির্বাচনে এই রাজ্যে কার সঙ্গে জোট হলে কংগ্রেসের অবস্থা ভাল হবে ?

সোমেন মিত্র : একা লড়লে সাংগঠনিকভাবে কংগ্রেস শক্তিশালী হবে । আর যদি জোট করে লড়াই করতে হয় তাহলে বামেদের সঙ্গে জোট হলে তা ভাল হবে । তবে যদি রাজ্যে আসন সংখ্যা বাড়াতে হয় তাহলে তৃণমূলের সঙ্গে জোট করা উচিত । অবশ্য এই জোট কংগ্রেসের পক্ষে মঙ্গলজনক হবে না । কারণ তৃণমূলের সঙ্গে জোটে গেলে কংগ্রেসকে গিলে খেয়ে নেবে । সাংগঠনিকভাবে কংগ্রেস শেষ হয়ে যাবে বলে আমি মনে করি ।

প্রশ্ন : তাহলে কি রাজ্য কংগ্রেসের ঘুরে দাঁড়ানোর কোনো সম্ভাবনা নেই ?

সোমেন মিত্র : কংগ্রেস একটি পরিবার । সবাইকে নিয়ে যৌথ সংসারের মত যদি ঐক্যবদ্ধ হয়ে সাংগঠনিক কাজ শুরু করা যায় তাহলে অবশ্যই সাফল্য আসবে ।

প্রশ্ন : সমগ্র দেশজুড়ে বিজেপি-র যে উত্থান সেই প্রেক্ষাপটেই রাজ্যেও দ্রূত বিস্তার করছে বিজেপি । এটা আপনি কোন চোখে দেখছেন ?

সোমেন মিত্র : কংগ্রেস তিরিশ বছর ধরে বলে আসছে বিজেপি-র সাম্প্রদায়িক রাজনীতি দেশের জন্য বিপদজনক । কিন্ত দুঃখের বিষয় হল কংগ্রেস নানা কারণে যেখানে দূর্বল হয়েছে সেখানেই বিজেপি-র উত্থান হয়েছে । উত্তরপ্রদেশ , বিহার , মধ্যপ্রদেশে প্রভৃতি এলাকায় কংগ্রেস দূর্বল হওয়ার পরই বিজেপি বিস্তার লাভ করেছে । তাই যারা ধর্মনিরপেক্ষতার কথা বলছেন তাদের উচিত কংগ্রেসের পাশে দাঁড়ানো । দেশে একমাত্র বিজেপি-র সঙ্গে লড়াই করার ক্ষমতা রাখে কংগ্রেস দল ।

আঞ্চলিক দলগুলির এই ক্ষমতা নেই । কিংবা তাদের পক্ষে বিজেপি-র মত এত বড় দলের সঙ্গে লড়াই করা সম্ভব নয় । তাই বেশিরভাগ আঞ্চলিক দলই গোপনে বিজেপি-র সঙ্গে সমঝোতা করে থাকে । সেটা কোনো দিন কংগ্রেস করবে না । আর সর্বভারতীয় স্তরে বিজেপিকে আটকানো গেলে রাজ্যেও তাদের বিস্তার আটকানো সম্ভব হবে ।

 


শেয়ার করুন
  • 38
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment