কলকাতা 

স্বাস্থ্য-কর্মী ও জরুরী পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত ব্যক্তিদের জন্য সীমিত সংখ্যক রুটে চালু হল বাস ও ক্যাব পরিষেবা

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : লকডাউন চলছে তাহলে কিছু মানুষ ও স্বাস্থ্যকর্মীদের যাতায়াত করতে হচ্ছে । এই ক’দিন তাদের যাতায়াতের প্রচন্ড অসুবিধা হয়েছে । তাই লকডাউনের মধ্যেও কলকাতা এবং সংলগ্ন এলাকায় কয়েকটি রুটে বাস চালানোর সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য পরিবহণ দফতর। সোমবার বিকেল থেকে রাজ্য সরকার লকডাউন ঘোষণা করেছে। কিন্তু তা সত্ত্বেও জরুরি পরিষেবার সঙ্গে যাঁরা যুক্ত রয়েছেন, তাঁদের কাজে বেরতেই হচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে তাঁদের কর্মস্থলে পৌঁছে দেওয়ার জন্যে ওই রুটগুলিতে বাস চালানো হবে বলে জানিয়েছে পরিবহণ দফতর। তবে এই রুটগুলি শুধু মাত্র জরুরি পরিষেবার জন্যেই। সেই সঙ্গে কলকাতায় অনলাইন অ্যাপ ক্যাব একমাত্র জরুরি এবং অপরিহার্য যাতায়াতের জন্য, সীমিত সংখ্যক গাড়ি চালাবে বলে পরিবহণ দফতর সূত্রে খবর।

আপাতত ৬টি রুটে এই পরিষেবা চালু থাকছে। যেহেতু বিমান পরিষেবা বন্ধ, তাই বিমানবন্দর থেকে বিভিন্ন রুটে আর বাস চালানো হচ্ছে না। এখন যে রুটগুলি চালু থাকবে, তা হল— হাওড়া স্টেশন থেকে কামালগাজি। এসপ্ল্যানেড থেকে আমতলা। হাওড়া স্টেশন থেকে নিউডাউন, ডানলপ থেকে বালিগঞ্জ, হাওড়া স্টেশন থেকে গড়িয়া, জোকা থেকে বারাসত।

 

রাজ্য পরিবহণ নিগমের ম্যানেজিং ডিরেক্টর, রজনবীর সিংহ কপূর বলেন, ‘‘এই পরিস্থিতিতে আমরা যতটা সম্ভব জরুরি পরিষেবা দেওয়ার চেষ্টা চালাচ্ছি।’’

এই রুটগুলিতে সকাল ৮টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত পরিষেবা দেবে পরিবহণ দফতর। এই রুটগুলিতে যে বাসগুলি চলবে, সেগুলিতে আগে জীবানুনাশক স্প্রে করা হবে। যাত্রীর সংখ্যা যাতে বেশি না হয়, সে দিকেও নজর দেওয়া হবে। এক পরিবহণ কর্তা জানালেন, ‘‘বাসের আসন সংখ্যার চেয়ে কম যাত্রী তোলা হবে সোশাল ডিসটেন্সিং’-এর জন্য।’’

পরিবহণ দফতরের একটি বিজ্ঞপ্তিতে বলা হচ্ছে, উবর এবং ওলা সীমিত সংখ্যাক ক্যাব চালাচ্ছে জরুরি ও অপরিহার্য পরিষেবার জন্যে। যাত্রী পরিবহণে কোনও রকম সমস্যা হলে, ফোনও করা যাবে। তার জন্যে বেশ কয়েকটি নম্বর চালু হল। ০৩৩-২২৩৬ ১৯১৬, ০৩৩-২২৩৬০৪৬২,৯৪৩২০২২১৪৭,৮৬৯৭৭৩৩৩৯১, ৮৬৯৭৭৩৩৩৯২। যে কোনও সমস্যায় হোয়াটসঅ্যাপেও অভিযোগ জানানো যাবে। নম্বর হল — ৯৮৩০১৭৭০০০। ওলা এবং উবরের কন্ট্রোল নম্বর হল— ৯৪৩৪৩১৫৮৯২,৮৩৩৫০০২১৩৩, ৯৪৩৪৫৫৪৯৪।

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment