দেশ 

কপিল মিশ্র সহ বিজেপি নেতাদের দিল্লিতে উস্কানিমূলক বক্তব্য নিয়ে মামলা শুনতে রাজি হল সুপ্রিম কোর্ট ; বুধবার শুনানী

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : বিজেপি যে সব নেতা উস্কানিমূলক মন্তব্য করেছিলেন তাদের মামলা শুনতে রাজি হল সুপ্রিম কোর্ট । আগামী বুধবার সেই মামলা শুনতে রাজি হয়েছে শীর্ষ আদালত।

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (সিএএ) বিরোধী  ও সমর্থকদের সংঘর্ষে গত সপ্তাহে তেতে উঠেছিল উত্তর-পূর্ব দিল্লি। তাতে এখনও পর্যন্ত ৪৬ জন প্রাণ হারিয়েছেন। আহত হয়েছেন ২০০-র বেশি মানুষ। ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। এর জন্য কপিল মিশ্র-সহ বিজেপিনেতাদের উস্কানিমূলক মন্তব্যকেই দায়ী করেছেন ক্ষতিগ্রস্তরা। তা নিয়ে সুপ্রিম কোর্টে একটি জনস্বার্থ মামলা দায়ের করেন তাঁরা। তাতে বলা হয়, উস্কানিমূলক মন্তব্যের জন্য বিজেপি নেতা কপিল মিশ্র, অনুরাগ ঠাকুর এবং প্রবেশ বর্মার বিরুদ্ধে অবিলম্বে এফআইআর দায়ের করতে হবে। দিল্লির বাইরে থেকে অফিসারদের এনে বিশেষ তদন্তকারী দল (সিট) গঠন করে, তাদের হাতে তুলে দিতে হবে তদন্তভার। উত্তর-পূর্ব দিল্লির আইনশৃঙ্খলা রক্ষা করতে নামাতে হবে সেনা।

সংঘর্ষ চলাকালীন পুলিশের ভূমিকা খতিয়ে দেখতে অবসরপ্রাপ্ত এক বিচারপতির নেতৃত্বে বিশেষ তদন্তকারী দল গঠনেরও আবেদন জানান ক্ষতিগ্রস্তরা। সেই সঙ্গে এখনও পর্যন্ত যাঁদের আটক করা হয়েছে, তাঁদের একটি তালিকা প্রকাশের অনুরোধ করা হয়েছে। সামনে আনতে বলা হয়েছে ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার সিসিটিভি ফুটেজও। সংঘর্ষের শিকার হয়ে এখনও পর্যন্ত যাঁদের মৃত্যু হয়েছে, তাঁদের দেহের ময়নাতদন্তের রিপোর্টও সংশ্লিষ্ট পরিবারের হাতে তুলে দিতে আর্জি জানানো হয়েছে।

তাঁর আর্জিতে সাড়া দিয়ে মামলার শুনানিতে রাজি হয় প্রধান বিচারপতি এসএ বোবদের ডিভিশন বেঞ্চ। প্রধান বিচারপতি এ দিন বলেন, ‘‘আমরাও খবরের কাগজ পড়ি। সেখানে আমাদের দোষারোপ করা হচ্ছে। আমাদের উপর অনেক চাপ রয়েছে। কিন্তু আমরা তো আর এই ধরনের ঘটনা রুখতে পারি না। প্রাণহানি একেবারেই চাই না আমরা। বরং চাই, সর্বত্র শান্তি বজায় থাকুক। আমরা বিষয়টি শুনব। কিন্তু একটা কথা বুঝতে হবে, কিছু ঘটে যাওয়ার পরেই পদক্ষেপ করতে পারে আদালত। হিংসা রোখার ক্ষমতা আদালতের নেই।’’

 

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment