দেশ 

প্রিয়াঙ্কাই সুরক্ষার নিয়ম ভেঙেছেন , যোগীর পুলিশের পর এবার অভিযোগ করল সিআরপিএফ

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : যোগী সরকারের পুলিশ প্রশাসনের সঙ্গেই তাল মিলিয়ে প্রিয়াঙ্কা গান্ধীকে কোনোভাবেই হেনস্থা করা হয়নি বলে রিপোর্ট দিল তাঁর সুরক্ষায় নিয়োজিত কেন্দ্রীয় আধা-সামরিক বাহিনী ।এক বিবৃতিতে সিআরপিএফ জানিয়েছে, “২৮ ডিসেম্বর ২০১৯, প্রিয়াঙ্কা গান্ধির সফরনামায় কংগ্রেসের ভিত্তি অনুষ্ঠানে অংশ নিতে প্রদেশ কংগ্রেস অফিস পরিদর্শন ছাড়া আর কোনও কিছুর উল্লেখ ছিল না।” প্রিয়াঙ্কা গান্ধি সুরক্ষা নীতিকে কী কী ভাবে লঙ্ঘন করেছিলেন যার ফলে পুলিশের সঙ্গে ধ্বস্তাধ্বস্তির মুখোমুখি হতে হয়েছিল এমন তিনটি বিষয়ও তালিকাভুক্ত করেছে সিআরপিএফ।

তিনি সেই সুরক্ষা বলয় ছেড়ে হঠাৎ করে এক প্রাক্তন আইপিএসের বাড়িতে যেতে চান । ফলে স্বাভাবিক নিয়মের তাঁর সুরক্ষার স্বার্থে মহিলা পুলিশ আধিকারিক বাধা দেন ।সোমবার নেত্রীর সুরক্ষা বিবরণী থেকে এমনটাই জানা গিয়েছে। রাজনীতিবিদকে জেড প্লাস সুরক্ষা প্রদানকারী কেন্দ্রীয় রিজার্ভ পুলিশ বাহিনী আরও জানিয়ে যে উত্তরপ্রদেশের এক মহিলা পুলিশের দ্বারা ‘সুরক্ষা লঙ্ঘন’ করা হয়নি। এই তিনটি বিষয় হল, কংগ্রেস নেত্রী কর্মসূচি সম্পর্কে তথ্য না দিয়েই ‘অনির্ধারিত আন্দোলনে’ লিপ্ত হয়ে সুরক্ষা ব্যবস্থা লঙ্ঘন করেছেন; এক নাগরিকের গাড়িতে করে ব্যক্তিগত সুরক্ষাকর্মী ছাড়াই ভ্রমণ; এবং একটি দু’ চাকার যানে যাত্রা করেছেন।

একজন বিরোধী দলের নেত্রী যেকোনো জায়গায় যেতেই পারেন । সবটাই পুলিশকে জানিয়ে যেতে হবে এমন কোনো কোড ভারতীয় সংবিধানে নেই । তাই প্রিয়াঙ্কা গান্ধী কোথাও যেতে চাইলে তাঁকে বাধা দেওয়া হবে এটা অগণতান্ত্রিক । বরং গণতান্ত্রিক সেটা হত তিনি যেখানে যেতে চান সেখানে সুরক্ষা দিয়ে পৌছে দেওয়া । তা না করে যোগী সরকারের পুলিশ ওই রাজ্যের মুসলিমদের সঙ্গে যে ব্যবহার করছে , সেই রকম ব্যবহার প্রিয়াঙ্কার সঙ্গে করা যায় কি ? তাছাড়া নিরাপত্তার দায়িত্ব দেওয়া সিআরপিএফের কাজ । সে প্রিয়াঙ্কার নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করবে , এছাড়া তার রাজনীতিতে প্রবেশ করা মানায় কি ?


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment