কলকাতা 

মিশন-২০১৯,লক্ষ্য বাংলার অর্ধেক আসন,জুনেই আসছেন বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ

শেয়ার করুন
  • 7
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ বাংলার ৪২টি লোকসভা আসনের মধ্যে বিজেপি-র টার্গেট ২২টি। একথা প্রকাশ্যে বলে চলেছেন রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ। কীভাবে ২০১৯-র লোকসভায় বাংলা থেকে ২২টি আসন জিতবেন তার এখনও কোন ব্যাখা অবশ্য বিজেপি নেতারা দেননি। তবে তাঁদের বিশ্বাস যেভাবে সদ্য সমাপ্ত পঞ্চায়েত নির্বাচনে ৫০০ থেকে বাড়িয়ে ৫৭৪০টি আসন তাঁরা পেয়েছে একইভাবে লোকসভাতেও অপ্রত্যাশিত ফল তারা করবে। বিশেষ করে জঙ্গল মহলে বিজেপি-র শক্তি বৃদ্ধিতে দলের কেন্দ্রীয় নেতারা খুশি।

মুকুল রায়ের নেতৃত্বে পঞ্চায়েত নির্বাচনে বিজেপি-র এই ফলে অমিত শাহ নাকি খুশি হয়েছেন বলে শোনা যাচ্ছে। এদিকে মুকুল রায় দিল্লিতে গত দুদিন ধরে এরাজ্যে শাসক দল কীভাবে সন্ত্রাস চালাচ্ছে তার বিবরণ কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব ছাড়া,স্বরাষ্ট্র দফতরের কর্তাদের তথ্য প্রমানসহ অভিযোগ পেশ করেছেন। প্রায় ১৫০ জন ভুক্তভোগীকে নিয়ে তিনি বিভিন্ন দফতরে অভিযোগ করেছেন। এছাড়াও কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিশনের কাছেও মুকুল রায় পঞ্চায়েত নির্বাচনে মনোনয়ন জমা দেওয়ার দিনগুলি থেকে শুরু করে ভোট গননা পর্যন্ত যে সন্ত্রাস শাসক দল করেছে তার ভিডিও ক্লিপিং সহ অভিযোগ করেছেন।অভিযোগে দাবি করা হয়েছে প্রশাসনকে কাজে লাগিয়ে শাসক দল এভাবে নির্বাচনকে প্রহসনে পরিনত করেছে। কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিশন রাজ্যে ভোট করানোর সময়ে এগুলি যাতে মাথায় রাখে সেই অনুরোধই মুকুল রায় কমিশনের কাছে করেছেন।

অন্যদিকে দলের সভাপতি অমিত শাহর কাছে পাঠানো রির্পোটেও সন্ত্রাস উপেক্ষা করে কীভাবে মানুষ বিজেপিকে ভোট দিয়েছে তার বিররণ দিয়েছেন মুকুল রায়।এছাড়া এরাজ্যের বেশ কয়েকজন আইএএস ও আইপিএস শাসক দলের হয়ে কাজ করছে বলে দলের সভাপতির কাছে পাঠানো রির্পোটে মুকুল রায় অভিযোগ করেছেন। এসব অভিযোগ পেয়েই অমিত শাহ এরাজ্যে আসার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। মহেশতলা বিধানসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচন হয়ে গেলেই অমিত শাহর এরাজ্যে আসার কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে বলে জানা গেছে। মনে করা হচ্ছে,জুন মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে অমিত শাহ এরাজ্যে আসতে পারেন। এবার তিনি কয়েকদিন এরাজ্যে থাকবেন বলে জানা গেছে। ২২টি লোকসভা কেন্দ্রের জন্য কঠোর সংগঠন গড়ে তোলার বিষয়ে এ সফরে সিদ্ধান্ত হবে বলে জানা গেছে।


শেয়ার করুন
  • 7
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment