কলকাতা 

পুলওয়ামায় সেনার উপর হামলা নিয়ে মোদী সরকারকে তোপ মমতার ‘দোষীদের শাস্তির পাশাপাশি ; শাস্তি চাই তাঁদেরও , যাঁরা গাফিলতি করেছে‘

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : জম্মু-কাশ্মীরের পুলওয়ামায় আত্মঘাতী হামলা নিয়ে আবারও সরব হলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় । সোমবার নবান্নে সাংবাদিকদের কাছে তিনি বলেন , এই ঘটনার সঙ্গে যুক্ত দোষীদের আমরা যেমন শাস্তি চাই। শাস্তি চাই তাঁদেরও, যাঁরা গাফিলতি করেছে।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কেন্দ্রের মোদী সরকারের বিরুদ্ধে এই ইস্যুতে একহাত নিলেন । বললেন ,গাফিলতি হলে তাঁর শাস্তিও হওয়া উচিত। কেন ৭৮টি সেনা গাড়িতে করে ২৫০০ জন সেনাকে একসঙ্গে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল, তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন মমতা।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, আমরা রাজনৈতিকভাবে সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম পুলওয়ামা নিয়ে রাজনীতি করব না। কিন্তু দেখলাম পুলওয়ামার জঙ্গি হামলা নিয়ে রাজনীতি করতে নেমে পড়েছেন খোদ মোদী-শাহরা। আমরা চুপ করে বসে আছি, আর মোদী-শাহরা ভাষণ দিয়ে যাচ্ছেন। এমন ভাষণ দিচ্ছেন, যেন ওরা শুধু দেশপ্রেমিক বাকিরা বিদেশি।মুখ্যমন্ত্রী বলেন, আমরা ভেবেছিলাম লড়াইটা একসঙ্গে করব। কিন্তু মোদী-শাহরা তার আগেই কথা শুরু করে দিলেন। তাই মুখ খুলতে বাধ্য হলাম। মমতা এদিন একে একে প্রশ্ন তুলে ধরেন মোদী সরকারের প্রতি। তিনি বলেন, গোয়েন্দা সূত্রে যদি খবর ছিল, তাহলে কেন ৭৮টি গাড়ি একসঙ্গে নিয়ে যাওয়ার অনুমতি দেওয়া হল? কেন এতগুলো সেনাকে মরতে হল?

মুখ্যমন্ত্রী এ প্রসঙ্গে  মার্কিন গোয়েন্দা দপ্তরের রিপোর্টের কথা উল্লেখ্য করে বলেন , ওখানে তো বলা হয়েছিল নির্বাচনের আগে ভারত জুড়ে দাঙ্গা লাগানো হতে পারে তা কি ঠিক? আগাম খবর থাকা সত্ত্বে কেন সেনা সরানোর উদ্যোগ নেওয়া হয়নি। কেন সিআরপিএফের অনুরোধ সত্ত্বেও এয়ারলিফ্ট করা হল না? এতবড় ব্যর্থতা কেন হল? এরপরও উচ্চপর্যায়ের তদন্ত হল না কেন? এসব প্রশ্নের জবাব তো দিতেই হবে।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment