জেলা 

ডাউট ক্লিয়ারিং ক্লাস সত্যিই ছিল অন্য ধরনের : দৃশ্যত খুশি বেস-আন-নূর এর ছাত্র-ছাত্রী এবং শিক্ষক শিক্ষিকারা

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব প্রতিবেদন : স্যান্ডফোর্ড অ্যাকাডেমি পরিচালিত মাধ্যমিক ২০২৪ -এর মক টেস্ট এবং তার খাতা মূল্যায়নের পর রবিবার দক্ষিণ দিনাজপুরের বেস আন নূরে ছিল ডাউট ক্লিয়ারিং সেশন। এদিন এই ডাউট ক্লিয়ারিং অধিবেশন নিয়ে এখানকার ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে ছিল তুমুল উৎসাহ উদ্দীপনা। মক টেস্ট দেয়ার পর নিজেদের ভুল ত্রুটি গুলো শুধরে নেয়ার জন্য ছাত্র-ছাত্রীদের এই তৎপরতায় খুশি কলকাতা থেকে আগত নামী শিক্ষকেরাও।

অন্যান্য বিভিন্ন সংস্থা পরিচালিত ডাউট ক্লিয়ারিং ক্লাসের থেকে এটি ছিল সম্পূর্ণ ভিন্ন । অন্যান্য ডাউট ক্লিয়ারিং ক্লাসে শুধুমাত্র টেস্ট পেপারটি যেটির উপরে পরীক্ষা নেয়া হয়েছিল তার ওপরেই ভুল ত্রুটিগুলো দেখিয়ে তাকে সম্ভাব্য লক্ষ্যে পৌঁছে দেয়া হয় কিন্তু অ্যাকাডেমির ডাউট ক্লিয়ারিং ক্লাস শুধুমাত্র পরীক্ষা পত্রের মধ্যেই সীমাবদ্ধ ছিল না, ভালো উত্তরপত্র তৈরি করতে গেলে কোন কোন দিকে খেয়াল রাখতে হয় তা নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা হয়। শব্দ সংখ্যা বেঁধে সময়ের মধ্যে কেমন করে যথাযথ উত্তর লিখতে হয় সে সম্পর্কে বিশদ আলোচনা তো হয়েই ছিল, সঙ্গে ছিল বিভিন্ন ক্ষেত্রে যে উত্তর লিখলে পরীক্ষকরা বেশি খুশি হন তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা। ডাউট ক্লিয়ারিং এর মূল পর্ব শুরু হয় সকাল দশটায়, শেষ হয় বিকেল পাঁচটায় । বেস আন নূরে এবারের মক টেস্ট ছিল খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

Advertisement

বিভিন্ন বিষয়ে মূলত বিজ্ঞান বিভাগে ছাত্র-ছাত্রীদের অগ্রগতি পরিষ্কার দেখতে পাওয়া যাচ্ছে বলে অভিমত ব্যক্ত করেন বেস আন নূরের প্রানসাগর ব্রাঞ্চের কোঅর্ডিনেটর সোহেল ইকবাল । মক টেস্ট-ই পারে ছোট খাটো ভুল ত্রুটি শুধরে নিজেকে আরো পরিচ্ছন্ন করে দিতে এবং নিজের সীমাবদ্ধতা সম্পর্কে সম্যক ধারণা গড়ে দিতে। আগামী পরীক্ষাগুলোতে এই ভুল ত্রুটি আরো কাটিয়ে উঠবে এবং আশা করা যায় এর মাধ্যমে বেশ কিছু ছাত্র-ছাত্রীর রেজাল্ট আরো ভালো হবে। এমন-ই মত ব্যক্ত করলেন প্রাণসাগর ব্রাঞ্চের প্রধান শিক্ষক। এদিনের কর্মশালা পরিচালনায় ছিলেন কলকাতা থেকে বিভিন্ন বিষয়ের অভিজ্ঞ শিক্ষক শিক্ষিকারা এবং ছিলেন একাডেমির মক টেস্ট পরীক্ষার মহা-পরিচালক পান্থ মল্লিক।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ