কলকাতা 

ডিএ মামলায় ২৪ সেপ্টেম্বরের মধ্যে রাজ্য সরকারকে হলফনামা জমা দিতে নির্দেশ দিল স্যাট

শেয়ার করুন
  • 31
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব প্রতিনিধি : রাজ্য সরকারের কর্মীরা ডিএ আইনত অধিকার কলকাতা হাইকোর্টের এই রায়ের পর । কেন্দ্রীয় সরকারের সমানে ডিএ-র দেওয়ার দাবিতে এবং কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারের মধ্যে ডিএ পার্থক্য নিরুপন করে আইনানুযায়ী ডিএ দেওয়ার দাবিতে স্যাটের কাছে ফের সরকারি কর্মীরা আবেদন করেছে। তারপরিপ্রেক্ষিতে আজ বুধবার রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের মহার্ঘ ভাতা (ডিএ) নিয়ে এ বার রাজ্য সরকারকে হলফনামা দেওয়ার নির্দেশ দিল স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইবুনাল (স্যাট)। ২৪ সেপ্টেম্বরের মধ্যে স্যাটের কাছে এই হলফনামা দিতে হবে রাজ্য সরকারকে।
বুধবার স্যাট-এর ডিভিশন বেঞ্চে ছিল ডিএ মামলার শুনানি। সেই শুনানিতে বিচারপতি সুবেশ দাস এবং রঞ্জিতকুমার বাগ-এর ডিভিশন বেঞ্চ রাজ্য সরকারকে হলফনামা দিয়ে দুটি বিষয় স্পষ্ট করতে বলেছে। কী সেই দুটি বিষয়? এক, কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীদের সঙ্গে রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের মহার্ঘ ভাতার ফারাক। দুই, দিল্লি ও চেন্নাইতে কর্মরত রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের সঙ্গে সমান ডিএ দেওয়া কেন হবে না , তা স্পষ্ট করতে রাজ্য সরকারকে নির্দেশ দিয়েছে স্যাট ।
উল্লেখ্য রাজ্য সরকারি কর্মচারী সংগঠনের অভিযোগ একই সরকারের অধীনে কাজ করা সত্ত্বে কেন দিল্লি ও চেন্নাই-মুম্বাইয়ে কর্মরত রাজ্য সরকারের কর্মচারীদের মধ্যে ডিএ-র পার্থক্য কেন ? এনিয়ে রাজ্য সরকারের কর্মচারী সংগঠনের আইনজীবী সরদার আমজাদ আলী কলকাতা হাইকোর্টে সওয়াল করেছিলেন। কলকাতা হাইকোর্টে পর্যবেক্ষণে এই বৈষম্য নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয়েছিল । তবে কলকাতা হাইকোর্টের দুই বিচারপতি শেখর ববি শরাফ ও দেবাশিষ করগুপ্তের ডিভিসন এ বিষয়ে কোন রায় দেননি। তাঁরা ডিএ সরকারি কর্মচারীদের অধিকার বলে রায় দিয়েছেন । একই সঙ্গে স্যাটকে নির্দেশ পাঠিয়েছেন দুমাসের মধ্যে ডিএ মামলার চূড়ান্ত ফয়সালা ঘোষণা করতে । বুধবার সেই মামলার শুনানীতে স্যাট ২৪ সেপ্টেম্বরের মধ্যে ডিএ নিয়ে রাজ্য সরকারের দৃষ্টিভঙ্গি ব্যাখ্যা চেয়ে হলফনামা জমা দিতে নির্দেশ দিয়েছে । রাজ্য সরকার কোন পথে ডিএ মামলা শেষ করতে চায় তা হলফনামা দিলেই স্পষ্ট হবে বলে সরকারি কর্মচারী সংগঠনগুলির প্রত্যাশা ।

শেয়ার করুন
  • 31
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment