জেলা 

ইয়াস ঘূর্ণিঝড়ে বিপর্যস্ত পূর্ব মেদিনীপুর জেলায় মাধ্যমিক, উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীসহ সকল ছাত্র-ছাত্রীদের খাদ্য, শিক্ষাসামগ্রী,সাবান,মাস্ক প্রদান করল AIDSO

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক :  ‘ইয়াস’ ঘূর্ণিঝড়ের তাণ্ডব ও জলোচ্ছ্বাসে বিধ্বস্ত পূর্ব মেদিনীপুর জেলায় মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী সহ সমস্ত স্তরের ছাত্র-ছাত্রীরা যাতে শিক্ষাজীবন চালিয়ে যেতে পারে তার জন্য আজ AIDSO’র পূর্ব মেদিনীপুর জেলা কমিটির উদ্যোগে তমলুক আঞ্চলিক কমিটির সহযোগিতায় গতকাল বৃহস্পতিবার তমলুকের ষোলফুকার এলাকার ১৪,১৮ নম্বর ওয়ার্ডের ১২০জন ছাত্রছাত্রীদের হাতে খাতা, পেন, মাক্স, সাবান সহ খাদ্যসামগ্রী তুলে দেওয়া হয়৷

এই কর্মসুচীতে উপস্থিত ছিলেন ছাত্রসংগঠন AIDSOর পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সম্পাদকমন্ডলীর সদস্য ও জেলা সভাপতি কমরেড স্বপন জানা,পাঁশকুড়া বনমালী কলেজের অধ্যাপক সজ্ঞীব কুইলা, সংগঠনের রাজ্য কমিটির সদস্য উত্তম পাড়ুই ও সুদর্শন মান্না। স্বপন জানা বলেন ‘এক দিকে যখন করোনা অতিমারীর ভয়ানক আক্রমনে মানুষ যখন বিপর্যস্ত তখন ‘ইয়াস’ ঝড়ের তান্ডবে প্রবল জলোচ্ছাসে বিভিন্ন জায়গায় মানুষের ঘরবাড়ি ভেঙ্গে ধুলিস্যাৎ হয়ে গিয়েছে৷

এমতাবস্থায় আমাদের ছাত্র সংগঠনের পক্ষ থেকে আমরা ছাত্রছাত্রীদের বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে যেমন লড়াই আন্দোলন করি তেমনি প্রাকৃতিক দূর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত ছাত্রছাত্রীরা যাদের ঘরবাড়ী ইয়াস ঘূর্ণিঝড় ও জলোচ্ছাসে ভেঙ্গে গিয়েছে তাদের শিক্ষাজীবন যাতে অব্যাহত রাখতে পারে সেইজন্য আমরা জেলাজুড়ে ছাত্রছাত্রীদের শিক্ষাসামগ্রী ও খাদ্য তুলে দিচ্ছি৷কাঁথির শৌলাতে ইতিমধ্যে এই কাজ আমরা করেছি আজ তমলুকে দেওয়া হচ্ছে এবং আগামী দিনে আরো বিভিন্ন জায়গায় দেওয়া হবে৷একই সঙ্গে আমরা ঝড়ের তান্ডবে ক্ষতিগ্রস্ত মাধ্যমিক উচ্চমাধ্যমিক ছাত্রছাত্রী সহ সমস্ত স্তরের ছাত্রছাত্রীদের দ্রুত শিক্ষাসামগ্রী প্রদানের দাবীতে ১—১৫ জুন জেলাশাসক ও শিক্ষামন্ত্রীর নিকট গণ আবেদন পত্র জমা দেওয়ার কর্মসূচী নিয়েছি৷
এই কর্মসূচীতে সকলস্তরের ছাত্রছাত্রীদের সামিল হওয়ার জন্য আহ্বান জানাচ্ছি৷’


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment