কলকাতা 

জল বাঁচাতে এবার প্রাথমিক স্তরেই জল সংরক্ষণের পাঠ ছাত্রছাত্রীদের

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

স্মৃতি বিশ্বাস: এবার থেকে রাজ্যের স্কুলগুলিতে তৃতীয় শ্রেণির পাঠ্যক্রমে’ যুক্ত হতে চলেছে ‘জল সংরক্ষণ’ বিষয়টি । সারা দেশে জলের যে সঙ্কট দেখা দিয়েছে তাতে স্কুলের পাঠ্যক্রমে বিষয়টি অন্তর্ভুক্ত করে সচেতনা বৃদ্ধির প্রয়োজনীয়তা অনুভব করছে রাজ্য| তাই সরকারের এই কর্মসূচির অঙ্গ হিসাবে এবার স্কুলপাঠ্যে বিষয়টি অন্তভুর্ক্ত হচ্ছে।

কয়েকদিন আগে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জল সংরক্ষণে ‘জল বাঁচাও জীবন বাঁচাও’ যাত্রা করেছেন। প্রতিবছর ১২ ই জুলাইকে জল বাঁচাও দিবস হিসেবে পালন করতে সকলকে নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। শহর হোক বা গ্রাম, পানীয় জলের অপচয় হয়েই চলেছে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জল সংরক্ষণের উপর জোর দিয়েছেন| যদিও কেন্দ্রের এখনও কোনও স্কুলের পাঠ্যক্রমে অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি জল সংরক্ষণের বিষয়টি|

তবে জল সংরক্ষণ নিয়ে শুধু বইয়ের মধ্যেই সীমাবদ্ধ না রেখে বছরে অন্তত একবার পরীক্ষাগারে নিজের হাতে পানীয়জল পরীক্ষা করার সুযোগ দেওয়া হবে ছাত্রছাত্রীদের। পাশাপাশি ওই জলের পরীক্ষার রিপোর্টের ভিত্তিতে ব্যবস্থা নেওয়ার পাঠও থাকবে পাঠ্যক্রমে। বৃষ্টির জল সংরক্ষণ করার উপর বিশেষভাবে প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে ।

এই প্রচেষ্টার মধ্যে দিয়ে ছেলেমেয়েদের মাধ্যমে অভিভাবকদেরও সচেতন করা যাবে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞদের একাংশ। সংরক্ষিত বৃষ্টির জল  অন্তত চার মাস ব্যবহার করা যায়। রাজ্য সরকার ‘জল ধরো জল ভরো’ প্রকল্পে পুকুর কাটায় জোর দিচ্ছে। একশো দিনের  কাজে জেলায় জেলায় পুকুর কাটা চলছে। সরকারি কাজ ছাড়াও প্রত্যেক বাড়িতে যাতে বৃষ্টির জল ধরে রাখা হয় সেই শিক্ষাও দেওয়া হবে স্কুলস্তরে।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment