জেলা 

বারাসতের পর এবার ব্যারাকপুরের মোহনপুরে ছেলে ধরা সন্দেহে মারধর যুবককে গুরুতর আহত অবস্থায় ভর্তি আরজিকরে

শেয়ার করুন

বাংলার জনরব ডেস্ক : গত সপ্তাহে বারাসতে ছেলে ধরার সন্দেহে মারধরের ঘটনার পর আবার ছেলে ধরা সন্দেহে মারধর করা হলো এক যুবককে ব্যারাকপুরের মোহনপুর এলাকায়।অভিযোগ, ইদের মেলায় বেড়াতে আসা এক যুবককে বেধড়ক মারধর করা হয়। গুরুতর জখম অবস্থায় তিনি আর জি কর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। গুজব রটিয়ে মারধরের ঘটনার প্রতিবাদে সরব মোহনপুর এলাকার বাসিন্দা। থানা ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখান তাঁরা।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ইদ উপলক্ষে মোহনপুর পঞ্চায়েতের কাঠালিয়ায় মেলায় এসেছিলেন এক যুবক। তিনি পাতুলিয়া পঞ্চায়েতের বাসিন্দা নাজির হোসেন। বয়স ৩২ বছর। মেলায় ঘোরাঘুরির সময় কয়েকজন যুবক তাঁকে ঘিরে ধরে। বলে, “তুই এলাকার বাচ্চা চুরি করতে এসেছিস।” এর পরই শুরু হয় গণপ্রহার। গুরুতর জখম অবস্থায় নাজির হোসেনকে প্রথমে বারাকপুর বি এন বসু হসপিটাল ও পরে তাঁর অবস্থার অবনতি হওয়ায় কলকাতা আর জি কর হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়েছে।

Advertisement

এদিকে মারধরের খবর ছড়িয়ে পড়তেই নাজিরের পরিবার ও পরিজন মোহনপুর থানায় এসে বিক্ষোভ দেখায়। অভিযোগ দায়ের করে। এবং দোষীর শাস্তি দাবি করেতে বিক্ষোভ দেখান তাঁরা। এলাকার লোকের দাবি, ভালো একটা ছেলেকে এভাবে ছেলে ধরা অপবাদ দিয়ে মারধর করা হয়েছে। এটা মেনে নেওয়া যায় না। এলাকার উত্তেজনা থাকার পুলিশ পিকেট বসানো হয়েছে।

 


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত নিবন্ধ