দেশ 

রাফাল যুদ্ধবিমান কেনা নিয়ে তদন্ত করার বিষয়ে রায়দান স্থগিত রাখল সুপ্রিম কোর্ট

শেয়ার করুন
  • 9
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : রাফাল যুদ্ধবিমান কেনার চুক্তিতে দূনীর্তি হয়েছে এই অভিযোগ জানিয়ে যথাযথ  তদন্ত চেয়ে সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করেছিলেন বিশিষ্ট সমাজকর্মী প্রশান্ত ভূষণ ও অরুণ শৌরি । তাঁদের দায়ের করার মামলার বুধবার শুনানী হলেও কোনো  রায় দিল না সর্বোচ্চ আদালত ।এ দিন এক টানা বেশ কয়েক ঘণ্টার শুনানির শেষে সুপ্রিম কোর্ট এই মামলার রায়দান থেকে বিরত হয়।

রাফাল চুক্তিতে দুর্নীতির অভিযোগ তুলে ইতি মধ্যে একাধিক মামলা দায়ের হয়েছে সুপ্রিম কোর্টে। সেই সব মামলার এদিন শুনানি হয় প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈর বেঞ্চে। বেঞ্চে রয়েছেন বিচারপতি এস কে কল এবং কে এম জোসেফও। বেঞ্চ বায়ুসেনার মার্শালের বক্তব্যও শোনে। তাঁর কাছ থেকে ভারতের যুদ্ধবিমান নির্মাণ সংক্রান্ত একাধিক প্রশ্নের উত্তর চাওয়া হয়।

আবেদনকারীদের পক্ষে প্রথম থেকেই দাবি করা হচ্ছে, অফসেট পার্টনার হিসাবে কেন্দ্রীয় সরকারের মনোনীত সংস্থাকে বরাত পাইয়ে দেওয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে পুঙ্ক্ষানুপুঙ্ক্ষ তদন্তের জন্য সিবিআইয়ের হাতে দায়িত্ব তুলে দেওয়া হোক।

একই সঙ্গে রয়েছে, নির্ধারিত মূল্যের থেকে বেশি ব্যয়ে ওই ফ্রান্সের দাসৌ সংস্থার কাছ থেকে রাফাল কেনার চুক্তি বিকৃতকরণের অভিযোগ।যদিও এ দিন প্রধান বিচারপতির বেঞ্চ সে ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করেনি। গত সোমবারই রাফাল চুক্তি সংক্রান্ত ১৪ পাতার নথি সিল করা খামে শীর্ষ আদালতে জমা দিয়েছে কেন্দ্র। এ দিনও অ্যাটর্নি জেনারেল কে কে বেনুগোপাল বেঞ্চের কাছে জানান, ‘‘রাফালের দাম এবং তা নির্ধারণের প্রক্রিয়া বাইরে চলে এলে কোনো শত্রূ দেশ তার সুবিধা নিতে পারে। যে কারণে রাফালের দাম নির্ধারণ নিয়ে আদালতে এর বেশি কোনও তথ্য দেওয়া যাবে না। কারণ কোনও তথ্য ফাঁস হয়ে গেলে আমি এবং আমার দফতরের উপর তার দায় বর্তাবে।’’

অবশ্য আবেদনকারীদের পক্ষে প্রশান্ত ভূষণ এবং অরুণ শৌরিসহ সকলেই সিবিআইয়ের দাবিতে সরব ছিলেন।


শেয়ার করুন
  • 9
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment