কলকাতা 

অ্যাডিনো ভাইরাসের প্রকোপ বাড়ছে, মৃত এক শিশু, ভেন্টিলেশনে ১০, উদ্বিগ্ন স্বাস্থ্য দফতর সতর্কবার্তা দিল রাজ্যবাসীকে

শেয়ার করুন

বাংলার জনরব ডেস্ক : কলকাতার শহরে অ্যাডিনো ভাইরাসের প্রকোপ বৃদ্ধি পাচ্ছে এই রোগে আক্রান্ত হয়ে বিসি রায় শিশু হাসপাতালে ইতিমধ্যে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে এর পরই নড়েচড়ে বসেছে স্বাস্থ্য দপ্তর জানা গেছে আরও ১০ জন শিশু ভেন্টিলেশনে রয়েছে। কেউ জানা গেছে যে, ছেলেটি বিসি রায় হাসপাতালে মারা গেছে সেই শিশুটি সাত আট দিন ধরে জ্বরে ভুগছিলেন এবং জ্বর নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিল। পরবর্তীকালে সেই শিশুটি মারা গেছে।

আবহাওয়ার খামখেয়ালিপনার মাঝেই ঘরে-ঘরে শিশুদের জ্বর-সর্দি-কাশি। এমনকী, পেটের সমস্যাও দেখা দিচ্ছে। পরিস্থিতি এতটাই খারাপ হচ্ছে যে হাসপাতালে ভরতি করতে হচ্ছে তাদের। দ্রুত হারে সংক্রমণ ছড়াচ্ছে অ্যাডিনো ভাইরাস। তবে এখনও আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই বলেই জানাচ্ছে স্বাস্থ্যভবন। বরং সতর্ক থাকার পরামর্শ দিচ্ছেন চিকিৎসকরা। গাইডলাইনও জারি করেছে স্বাস্থ্যভবন।

Advertisement

তিনদিনের বেশি সময় ধরে জ্বর থাকলে, মাথাব্যথা, পেটখারাপ হলে চিকিৎসা আবশ্যক। সাধারণত জ্বর-কাশি, গলাব্যথার পাশাপাশি পেট খারাপ, বমি হয়ে থাকে এই ভাইরাসের আক্রমণে। চিকিৎসকরা বলছেন. নির্দিষ্ট সময় অন্তর জ্বর মাপতে হবে। জ্বর কতটা উঠল তা লিখে রাখতে হবে। একদিনের মধ্য়ে জ্বর না কমলে চিকিৎসকের কাছে যাওয়া আবশ্যক। অক্সিমিটার দিয়ে নির্দিষ্ট সময় অন্তর রক্তে অক্সিজেনের মাত্রা পরিমাপ করতে হবে। দু’বছরের কমবয়সিরা অসুস্থ হলে তাদের আলাদা রাখার পরামর্শ দিচ্ছেন চিকিৎসকরা।

শ্বাসকষ্ট হলে মাস্ক (Mask) ব্যবহার করা আবশ্যক। সেইসঙ্গে হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহারও গুরুত্বপূর্ণ। অসুস্থ শরীর নিয়ে ভিড়ের মাঝে যেতেও নিষেধ করছেন চিকিৎসকরা। শিশুরা অসুস্থ থাকলে স্কুলে পাঠাতে নিষেধ করছেন তারা।

 


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত নিবন্ধ