কলকাতা 

DA News : মহার্ঘ ভাতার দাবিতে রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের কর্মবিরতি রুখতে কড়া বিজ্ঞপ্তি দিল নবান্ন, কি সেই বিজ্ঞপ্তি? জানতে হলে ক্লিক করুন

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : মহার্ঘ ভাতা মেটানোর দাবিতে রাজ্য সরকারি কর্মচারীরা আগামী সোমবার ও মঙ্গলবার অর্থাৎ কুড়ি ও একুশে ফেব্রুয়ারি রাজ্যজুড়ে কর্ম বিরতি ডাক দিয়েছে। শহীদ মিনারে অবস্থানরত যৌথ সংগ্রাম মঞ্চের পক্ষ থেকে এই ডাক দেওয়া হয়েছে। রাজ্যের ২৮ টি সরকারি কর্মচারী সংগঠনের পক্ষ থেকে গঠিত হয়েছে যৌথ সংগ্রামী মঞ্চ। আর এই দুইদিন ব্যাপী কর্মবিরতির ডাক দেওয়ার ফলে নড়েচড়ে বসেছে রাজ্য সরকারও। এক বিজ্ঞপ্তি জারি করে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে সোমবার ও মঙ্গলবার অর্থাৎ কুড়ি ও একুশে ফেব্রুয়ারি রাজ্য সরকারের কর্মচারীদের সমস্ত ছুটি বাতিল করা হয়েছে যারা এই দুইদিন আসবেন না তাদের কর্মজীবন থেকে একটি দিন বাদ যাবে।আজ শনিবার এই মর্মে নবান্ন থেকে বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে। কয়েকটি কর্মী সংগঠন ওই দু’দিন পেন-ডাউন ও ধর্মঘটের ডাক দেওয়ায় কঠোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে নবান্ন (Nabanna)।

অর্থসচিব মনোজ পন্থের স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, এই দু’দিন কর্মীরা কোনও সিএল (Casual Leave) নিতে পারবেন না। একমাত্র ছাড় হাসপাতালে ভরতি হলে কিংবা পরিবারের কোনও সদস‌্য মারা গেলে। কর্মবিরতিতে অংশ নিলে শোকজের মুখে পড়তে হবে কর্মীদের। তবে ১৭ ফেব্রুয়ারির আগে অনুমোদিত ছুটিতে যাঁরা রয়েছেন তাঁরা এই নির্দেশিকার আওতার বাইরে।

বকেয়া ডিএ’র (DA) দাবিতে দীর্ঘদিন ধরেই সরকারি কর্মীরা সরব। সদ্য হয়ে যাওয়া রাজ্য বাজেটে ৩ শতাংশ ডিএ বাড়ানোর পরও সরকারি কর্মীদের আন্দোলনে ইতি পড়েনি। কারণ, নয়া হারে ডিএ ঘোষণার পরও কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারি কর্মীদের ডিএ’র ফারাক অনেকটাই বেশি। প্রাপ্য না মিটলে আন্দোলনের রাস্তা থেকে সরে আসবে না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছে রাজ্য সরকারি কর্মীদের যৌথ মঞ্চ। তাদের তরফে আগামী সোম ও মঙ্গল অর্থাৎ ২৯ ও ২১ ফেব্রুয়ারি সম্পূর্ণ কর্মবিরতি বা পেন-ডাউনের ডাক দেওয়া হয়েছে।

আর তা রুখতেই কড়া পদক্ষেপ নিল নবান্ন। বন্‌ধ মোকাবিলায় সাধারণত এ ধরনের পদক্ষেপ নিয়ে থাকে রাজ্য প্রশাসন। এবার সরকারি কর্মীদেরই কর্মসূচির বিরোধিতায় ওই ২ দিন ছুটি নেওয়ায় নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে নবান্ন। বলা হয়েছে, ওই ২ দিন বা দু’দিনের মধ্যে একদিনও ছুটি নেওয়া যাবে না। ছুটি নিলে সার্ভিস বুক থেকে তা বাদ যাবে, যা সরকারি কর্মীদের কর্মজীবনের রেকর্ডে কালো দাগ বলে মনে করা হয়। এই বিজ্ঞপ্তি নিয়ে সরকারি কর্মী সংগঠন কনফেডারেশনের প্রতিক্রিয়া, কর্মবিরতি রুখতে রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস চালনা হচ্ছে।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ