জেলা 

নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেনের দখলকৃত জমি ফেরত চেয়ে পুরনো নথি দিয়ে চিঠি পাঠালো বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ

শেয়ার করুন

বাংলার জনরব ডেস্ক: নোবেলজয়ী অমর্ত্য সেনের জমি নিয়ে এবার আরও সংঘাতে গেল বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ। জমির পুরোনা নথি পাঠিয়ে রীতিমতো অতিরিক্ত জমি ছেড়ে দেওয়ার জন্য চিঠি পাঠালো বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ।

জানা গেছে,শান্তিনিকেতনে (Santiniketan) নোবেলজয়ী অমর্ত্য সেনের বাড়ি ‘প্রতীচী’র পিছনে খানিকটা জমি নিয়ে জটিলতার সূত্রপাত। বিশ্বভারতীর দাবি, ১.২৫ একর জমির বদলে ১.৩৮ একর জমি রয়েছে বাড়িটি ঘিরে। অতিরিক্ত ১৩ ডেসিমেল জমি বেআইনিভাবে দখল করা বলে অভিযোগ। এ নিয়ে জমির নথি-সহ ২০০৬ সাল থেকে অমর্ত্য সেনকে চিঠি দেওয়া হয় বিশ্বভারতীর তরফে। কর্তৃপক্ষর দাবি, ওই ১৩ ডেসিমেল জমিটি বিশ্ববিদ্যালয়ের। তাই তা ফিরিয়ে দিতে হবে। অর্থাৎ সেই সময় থেকে বিশ্বভারতীর সঙ্গে অমর্ত্য সেনের একটা দ্বৈরথ তৈরি হচ্ছিল।

Advertisement

এবারও গত ২৪ জানুয়ারি তাঁকে জমি ফেরতের জন্য চিঠি পাঠায় বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ। তাতে নোবেলজয়ীর প্রতিক্রিয়া ছিল, এ নিয়ে তিনি আর আইনি জটিলতায় যেতে চান না। নিয়ম মেনে যা করার, তাই করবেন। তার ঠিক ২ দিনের মধ্যেই ফের জমি ফেরানোয় কার্যত চাপ দিয়ে শুক্রবার আরও একটি চিঠি পাঠানো হয় বিশ্বভারতীর তরফে। তাতে ২০০৬ সালের পুরনো চিঠিটিও জুড়ে দেওয়া রয়েছে। আর তাকেই আরও অবমাননাকর বলে মনে করছে নোবেলজয়ীর অনুরাগীদের একাংশ।

 


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত নিবন্ধ