জেলা 

পঞ্চায়েতের বোর্ড গঠনকে কেন্দ্র করে তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে উত্তপ্ত দেগঙ্গা , আক্রান্ত বিধায়ক

শেয়ার করুন
  • 7
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব প্রতিনিধি : পঞ্চায়েতের বোর্ড গঠনকে কেন্দ্র করে তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে উত্তপ্ত উত্তর ২৪ পরগনার দেগঙ্গার চৌরাশি। সোমবার ছিল এই এলাকায় পঞ্চায়েত বোর্ড গঠন প্রক্রিয়া । কিন্ত রবিবার রাত থেকেই  সেখানে বোমাবাজি চলে বলে জানা  গেছে । সোমবার দুপুর বারোটায় দেগঙ্গার চৌরাশি গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান নির্বাচনের কথা। তার আগে রবিবার সারারাত সেখানে চলল বোমাবাজি। তৃণমূলের দলের পক্ষ থেকে আগেই নেতা ঠিক করে দেওয়া হয়েছিল। তা সত্ত্বেও এখানে গোষ্ঠী কোন্দল ঠেকানো গেল না।
চৌরাশি গ্রাম পঞ্চায়েতে তৃণমূল সংখ্যাগরিষ্ঠ। ১৬ টি আসনের মধ্যে তৃণমূল ১৩ টি আসন পেয়েছিল। সিপিএম, ফরওয়ার্ড ব্লক ও নির্দলরা একটি করে আসন পেয়েছিল। সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেলেও, পঞ্চায়েতের বোর্ড কোন গোষ্ঠীর দখলে থাকবে, তা নিয়েই গণ্ডগোল। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, একগোষ্ঠীর পক্ষে ৬ জন তৃণমূল সদস্য, অপর গোষ্ঠীর পক্ষে সাতজন তৃণমূল সদস্য। যে গোষ্ঠীর পক্ষে ছয়জন তৃণমূল সদস্য, তিনি বাকি তিনজন( সিপিএম, ফব, নির্দল)কে নিয়ে এলাকায় সন্ত্রাস চালাচ্ছেন বলে অভিযোগ তৃণমূলের অপর গোষ্ঠীর।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সকালে সেখানে যায় বিশাল পুলিশ বাহিনী। ব্যাপক লাঠিচার্জ করে এলাকা ফাঁকা করে দেয় পুলিশ বাহিনী। শুধু চৌরাশিতে নয়, দেগঙ্গা আনুলিয়াতে পঞ্চায়েত বোর্ড গঠনকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ হয়।ঘটনাস্থলে  দেগঙ্গার  বিধায়ক যাওয়ার পর তাঁকে ঘিরেও বিক্ষোভ শুরু হয় এবং তাঁর গাড়ি ভাঙচুর করা হয় বলে অভিযোগ। এ প্রসঙ্গে বিরোধী দলগুলিকে শাসক তৃণমূলকে কটাক্ষ করেছে । তাঁরা বলেছেন পঞ্চায়েতকে বিরোধী শূন্য করতে গিয়ে আসলে নিজের অস্তিত্বকেই বিপন্ন করে তুলছে তৃণমূল ।


শেয়ার করুন
  • 7
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment