দেশ 

ভাইয়ের কপালে বন্দুক ঠেকিয়ে দিদিকে গণধর্ষণ, যোগীর রাজ্যে এই নারকীয় ঘটনায় সমালোচনায় মুখর বিরোধীরা

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক: গনধর্ষণের শিকার হল এক কিশোরী । ১৫ বছরের ওই কিশোরীকে গণধর্ষণ করে ৪জন মিলে । এই সময় নির্যাতিতার ১২ বছরের ভাইয়ের কপালে বন্দুক ঠেকিয়ে এই কাজ করে দুস্কৃতিরা । ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশে । চার জন অভিযুক্তের মধ্যে তিন জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে ।

জানা গেছে, মুজফফরনগরের এক গ্রামে বাস  করে ওই কিশোরীর পরিবারের। গত শনিবার তার বাবা-মা অন্য এক গ্রামে একটি পারিবারিক অনুষ্ঠানে যোগ দিতে যান। ঘরে ঘুমিয়ে ছিল দুই ভাইবোন। এরপরই সেখানে প্রবেশ করে মূল অভিযুক্ত। সে আসলে ওই কিশোরীর প্রতিবেশী। দু’জনকে ঘুমন্ত দেখে সে ডেকে আনে তার তিন সঙ্গীকে। এরপর ছোট ছেলেটির মাথায় বন্দুক ঠেকিয়ে তাকে শাসানো হয়, মুখ খুললে তাকে খুন করা হবে। এরপরই ছোটভাইয়ের সামনে ওই কিশোরীকে ধর্ষণ করে অভিযুক্তরা।

তারা পালিয়ে গেলে ছেলেটি ফোন করে তার বাবা-মা’কে খবর দেয়। তাঁরা দ্রুত বাড়ি ফিরে দেখতে পান ওই কিশোরী অচেতন হয়ে রয়েছে। কিশোরীর বাবা জানিয়েছেন, তাঁরা অভিযুক্তের বাড়ি গিয়ে সব জানালে উলটে তাঁদেরই হুমকি দেওয়া হয় কথা বাড়ালে ফল ভাল হবে না।

ইতিমধ্যেই মেয়েটির মেডিক্যাল রিপোর্টে ধর্ষণের প্রমাণ মিলেছে। পুলিশ এফআইআর দায়ের করে তদন্তে নেমেছে। তদন্তকারী ৫টি দল তল্লাশি চালিয়েছে বিভিন্ন জায়গায়। এখনও পর্যন্ত ৩ জনকে গ্রেপ্তার করা হলেও মূল অভিযুক্ত পলাতক। চতুর্থ তথা মূল অভিযুক্ত এখনও অধরা। তার খোঁজে বিভিন্ন জায়গায় তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ।

যোগী আদিত্যনাথের রাজত্বে এই রাজ্যে নারী নির্যাতন আনুপাতিক হারে বেড়েছে । এই ঘটনা আরও একবার প্রমাণ করল ।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ