কলকাতা 

‘‘সুপ্রিম কোর্টে গেলে পাঁচ মিনিটে স্থগিতাদেশ হয়ে যাবে। আমি সব শিক্ষকদের বলছি, নিশ্চিন্তে থাকুন,এই রায় সম্পূর্ণ ভুল রায়’’ : কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়

শেয়ার করুন

সোমবার হাই কোর্টের বিচারপতি দেবাংশু বসাক এবং বিচারপতি মহম্মদ শাব্বার রশিদির বিশেষ ডিভিশন বেঞ্চ এসএসসি মামলার রায়ে সব মিলিয়ে মোট ২৫ হাজার ৭৫৩ জনের চাকরি বাতিল করেছে। অর্থাৎ, ২০১৬ সালে যাঁরা চাকরি পেয়েছিলেন, তাঁদের সকলের নিয়োগ বাতিল করা হয়েছে। শুধু তা-ই নয়, প্যানেলের মেয়াদ শেষের পরে যাঁরা চাকরি পেয়েছেন, জনগণের টাকা থেকে বেতন নিয়েছেন, তাঁদের চার সপ্তাহের মধ্যে সুদ-সহ বেতন ফেরত দিতে হবে। বছরে ১২ শতাংশ সুদে টাকা ফেরত দিতে হবে।

আদালতের এই রায়কে সম্পূর্ণ ত্রুটিপূর্ণ, ভুল বলে দাবি করলেন নিয়োগপ্রাপকদের অন্যতম আইনজীবী তথা তৃণমূল নেতা কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, ‘‘এটি সম্পূর্ণ ত্রুটিপূর্ণ রায়। কারও কারও ক্ষেত্রে অভিযোগ ছিল, ৭৫ শতাংশ ক্ষেত্রে তো অভিযোগ ছিল না। তা হলে কী করে এই রায় হয়?’’ তাঁর সংযোজন, ‘‘সুপ্রিম কোর্টে গেলে পাঁচ মিনিটে স্থগিতাদেশ হয়ে যাবে। আমি সব শিক্ষকদের বলছি, নিশ্চিন্তে থাকুন। এই রায় সম্পূর্ণ ভুল রায়।’’

Advertisement

তৃণমূল নেতা ও আইনজীবী কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় একথা বললেও বিরোধীরা তৃণমূল কংগ্রেসকে আক্রমণ করতে ছাড়ছেন না। সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তী বলেছেন টাকা ফেরত দেওয়ার কথা বলেছে হাইকোর্ট । কিন্তু যারা তৃণমূল নেতাদের টাকা দিয়ে চাকরি পেলেন তাদের এই দুঃসময়ে তৃণমূলের উচিত টাকা দেওয়া। সবার কাছে অভিযোগ করেছেন যারা তৃণমূল নেতাদের টাকা দিয়েছেন তারা যেন থানায় এফ আই আর করেন বাকিটা বুঝে নেবেন।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত নিবন্ধ