কলকাতা 

মুকুল-অর্জুনের খাস তালুক ব্যারাকপুর শিল্পাঞ্চলের আট পুরসভা নিয়ে গঠিত হচ্ছে নিগম , পিছিয়ে যেতে পারে ভোট , তীব্র প্রতিক্রিয়া বিজেপির

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : পুরসভা ভোটের ঠিক মুখেই ব্যারাকপুর শিল্পাঞ্চল নিয়ে একটি পুরনিগম গঠন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য প্রশাসন ।পুর-নগরউন্নয়ন দফতর এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে জানা গেছে । এর ফলে এই আট পুরসভার ভোট স্থগিত হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা আছে । মনে করা হচ্ছে , আগামী বছর ২০২১-র বিধানসভা নির্বাচনের পরেই নব গঠিত ব্যারাকপুর নিগমের ভোট হতে পারে। ফলে এক বছরের বেশি সময় যেমন রাজ্য সরকার পাবে একই সঙ্গে আগামী বিধানসভা নির্বাচনে ক্ষমতায় আসার পর মমতা ভোট করালে নিঃসন্দেহে জিতে পারে ।

নবান্ন সূত্রে খবর,যে ৮টি পুরসভা (ব্যারাকপুর, গারুলিয়া, ভাটপাড়া, হালিশহর, কাঁচরাপাড়া, টিটাগড়, উত্তর ব্যারাকপুর এবং নৈহাটি) নিয়ে ব্যারাকপুর পুর নিগম গঠনের পরিকল্পনা রয়েছে, সেই সব জায়গায় নির্বাচন স্থগিত হতে পারে। ব্যারাকপুর পুর নিগমের সঙ্গে জুড়ে যেতে পারে মোহনপুর, কাউগাছি, জেটিয়া গ্রামপঞ্চায়েতের এলাকাও। পুরসভাগুলিতে জনসংখ্যা, এলাকা বিন্যাস, পরিষেবাসহ বিভিন্ন বিষয়ের উপর নির্ভর করে কর্পোরেশন গঠন হবে। সে বিষয়ে কয়েক ধাপ এগনো হয়ে গিয়েছে বলেও প্রশাসনিক সূত্রে খবর

রাজ্য সরকারের এই সিদ্ধান্তে কড়া সমালোচনা করেছেন বিজেপির ব্যারাকপুর সাংগঠনিক জেলা কমিটির সভাপতি উমাশঙ্কর সিংহ ,‘‘কর্পোরেশন গঠনের গল্পটা পুরো ভাঁওতা। কোনও কর্পোরেশন হবে না। কর্পোরেশন গঠনের নামে তৃণমূল আসলে এই এলাকার ভোটটাকে পিছিয়ে দেবে।’’ কেন তৃণমূল পিছিয়ে দিতে চাইছে ব্যারাকপুর শিল্পাঞ্চলের পুরভোট, তার ব্যাখ্যাও দিচ্ছেন বিজেপি নেতারা। উমাশঙ্করের কথায়, ‘‘এখানে তৃণমূলের পায়ের তলায় আর একটুও মাটি নেই। ভোট হলেই এই অঞ্চলের সব পুরসভা ওদের হাতছাড়া হবে। তাই ভোটে যেতে ভয় পাচ্ছে।’’ বিজেপির জেলা সভাপতির প্রশ্ন, ‘‘পুলিশ ওদের, প্রশাসন ওদের। গুন্ডা নামিয়ে সন্ত্রাস তৈরি করার চেষ্টা করছে। দলদাস পুলিশ সব দেখেও চুপ করে থাকছে। এর পরেও এত ভয় কিসের?’’ ‘‘ওদের যদি এতই জনসমর্থন থাকে, তা হলে যে সব জায়গায় ভোট হবে, সেখানেও তো জিতবে। শুধু ব্যারাকপুর নিয়ে ভাবছে কেন?’’ পাল্টা প্রশ্ন তৃণমূলের

এপ্রিলের দ্বিতীয় সপ্তাহে কলকাতা হাওড়া পুরসভায় ভোট হতে পারে। তার পর বিভিন্ন জেলার ১১১টি পুরসভায় ভোট হওয়ার কথা। সে কথা মাথায় রেখেই প্রস্তুতি নিচ্ছে রাজ্য নির্বাচন কমিশন। কবে, কোথায় ভোট হবে বিষয়ে খুব শীঘ্রই রাজ্যের তরফে সবিস্তার জানিয়ে চিঠি দেওয়া হবে কমিশনকে।

রাজ্য বিজেপির সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ নেতাদের অন্যতম মুকুল রায় এবং দাপুটে সাংসদ অর্জুন সিংহের খাসতালুকও ওই ব্যারাকপুরই। সেই এলাকাতেই কৌশলে ভোট আটকে দেওয়ার চেষ্টা বিজেপি যে মানবে না, তা দলের রাজ্য নেতৃত্বও স্পষ্ট করে দিচ্ছে। বিজেপি সূত্রের খবর, দলের জেলা নেতৃত্বের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে ইতিমধ্যেই কথা হয়েছে রাজ্য নেতাদের। শুক্রবার ব্যারাকপুর জেলা বিজেপির সভাপতিকে রাজ্য দফতরে ডেকেও পাঠানো হয়েছে। আরও এক দফা আলোচনা সেরে আইনি পদক্ষেপ করা হতে পারে বলে খবর। উমাশঙ্কর বলেন, ‘‘আমরা কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হওয়ার কথা ভাবছি “।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment