কলকাতা জেলা 

আন্তর্জাতিক শিশু দিবস উপলক্ষে শিশুদের অধিকার প্রতিষ্ঠায় সমস্ত ধর্মীয় উপাসনালয়ের নতুন ভাবনা

শেয়ার করুন

বিশেষ প্রতিনিধি : জাতীয় শিশু দিবস তো পালন করা হয় ১৪ নভেম্বর। সারা দেশে শিশুদের অধিকার সুরক্ষিত করতে পালন করা হয় এই দিনটি। প্রতি বছর ২০ নভেম্বর এই দিনটি গোটা পৃথিবীতে শিশু দিবস উদযাপন করা হয়। শিশুরাই আগামী দিনের ভবিষ্যত। তাই অভিভাবকদের যত্ন থেকে শিক্ষা ও স্বাস্থ্য তাদের অন্যতম অধিকার। কিন্তু নানা কারণে যেমন- প্রাকৃতিক বিপর্যয়, যুদ্ধ, দুর্ভিক্ষ জন্য বিশ্বের সব শিশু সেই সুযোগ সুবিধা পায় না। অতি অল্প বয়সেই অনেকে স্কুলছুট হয়। প্রতি বছরের মতোই একটি বিশেষ ভাবনাকে কেন্দ্র করে পালন করা হবে বিশ্ব শিশু দিবস।

গত ২০ নভেম্বর উনিসেফের সহায়তায় আমানত ফাউন্ডেশন ট্রাষ্ট শিশুদের অধিকারের প্রতীকরুপে ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানগুলি নীল রঙ দিয়ে সাজিয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা করেছে । কলকাতা, মালদা, পুরুলিয়া, দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার ৬ টি ধর্মের ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানগুলি নীল আলোয় সজ্জিত করা হয়। কলকাতার হরিশ মুখার্জি রোডে শিখ গুরুদুয়ারা সান্ত কুঠিয়া, পার্ক সার্কাসের মসজিদ আন নূর, কবি ভারতি লেক টারেস রোডে নিপ্পজান মাইহোজি বৌদ্ধ মন্দির, শ্যামবাজার মানিকতলা রাজা দিনেন্দ্র রোডে পরেশনাথ জৈন শেতাম্বর মন্দির, পুরুলিয়ার জেলিয়া পাড়া দুর্গা মন্দির, পুরুলিয়ার ছারার সেন্ট জোসেফ বেলিভার ইস্টার্ন চার্চ, দক্ষিণ দিনাজপুরের সেন্ট মেরিস চার্চ, মালদা জালালপুর কালিয়াচক-১ -এর বরানগর সেখ পাড়া জামে মসজিদ প্রভৃতি জায়গায় নীল রঙ দিয়ে সুসজ্জিত করা হয় । পরেশনাথ জৈন শেতাম্বর মন্দিরের ইনচার্জ অরুণ জৈন ও আমানত ফাউন্ডেশন ট্রাষ্ট -এর জেনারাল সেক্রেটারি জালালউদ্দিন আহমেদ আন্তর্জাতিক শিশু দিবস ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানগুলি নীল আলোয় সজ্জিত করার গুরুত্ব তুলে ধরেন ।

Advertisement

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত নিবন্ধ