দেশ 

হিন্দুরা পরধর্ম সহিষ্ণু, তাই এদেশে ইসরাইল ফিলিস্তিনের মতো সংঘর্ষ হয়নি, আগামী দিনেও হবে না : মোহন ভাগবত

শেয়ার করুন

বাংলার জনরব ডেস্ক : ইসরাইল ফিলিস্তিন রক্তক্ষয়ী সংগ্রাম অব্যাহত। ইসরাইলের এক তরফা বোমাবর্ষণ ে ফিলিস্তিনের গাজা উপতাকা কার্যত শ্মশানে পরিণত হয়েছে। পানীয় জল এবং বিদ্যুৎ সংযোগ কেটে দিয়ে যে মানবতার অত্যাচার ইসরাইল গাঁজা ভূখণ্ডে বসবাসরত বাসিন্দাদের উপর করছে এক কথায় বিশ্বের ইতিহাসে নজিরবিহীন ঘটনা। এ নিয়ে সমগ্র বিশ্বজুড়ে মানবাধিকার কর্মীরা এবং বেশ কয়েকটি দেশ তীব্র নিন্দা করেছে।

আর এই প্রেক্ষাপটে দাঁড়িয়ে শিবাজীর রাজ্য অভিষেকের দিবসকে সামনে রেখে রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘের প্রধান মোহন ভাগবত বলেছেন, ইসরাইল ফিলিস্তিনের সংঘর্ষ দশকের পর দশক চললেও এদেশে কোন বিবাদ নেই। কারণ এ দেশে হিন্দুরা বাস করে।

Advertisement

ছত্রপতি শিবাজীর ৩৫০তম রাজ্যাভিষেক দিবস উপলক্ষে একটি স্কুলের অনুষ্ঠানে যোগ দেন সংঘপ্রধান। সেখানেই তিনি বলেন, “এ দেশে একটি ধর্ম ও সংস্কৃতি রয়েছে, যা সব সম্প্রদায় এবং তাদের বিশ্বাসকে সম্মান করে। এটা হিন্দুদের দেশ। তার মানে এই নয় যে আমরা বাকিদের (ধর্মগুলিকে) প্রত্যাখান করব। আপনি যখন নিজেকে হিন্দু বলছেন, তখন আর বলার দরকার নেই যে মুসলমানরাও সুরক্ষিত। কেবলমাত্র হিন্দুরাই এটা করে থাকে। ভারতেই এটা হয়। অন্যরা এভাবে ভাবেন না।” ভাগবত যোগ করেন, “সব জায়গায় সংঘাত চলছে। ইউক্রেনের যুদ্ধের কথা জানেন আপনারা। এবং হামাস-ইসরায়েল যুদ্ধ। ভারতের এমন ইস্যুতে কখনওই যুদ্ধ হয়নি। শিবাজী মহারাজের আমলেও আগ্রাসন ছিল। কিন্তু এই ইস্যুতে আমরা কখনও কারও সঙ্গে যুদ্ধ করিনি। এই কারণেই আমরা হিন্দু।”

মোহন ভাগবতের এই মন্তব্য থেকে এটাই স্পষ্ট হয়েছে যে আমাদের দেশ হিন্দুর দেশ। হিন্দুরা সর্বধর্ম সমন্বয়ে বিশ্বাস করে। কিন্তু দেশ জুড়ে যে বিদ্বেষের প্রচার চলছে মুসলিম সম্প্রদায়ের উপর হামলা চলছে, এলাকায় এলাকায় তা নিয়ে স্বয়ং সেবকের নীরবতা ওয়াকিবহুল মহলকে বিস্মিত করেছে।

 


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত নিবন্ধ