কলকাতা 

“কেন মাদ্রাসা সার্ভিস পরীক্ষায় উত্তীর্ন পরীক্ষার্থীদের অনশন করতে হল?” প্রশ্ন তুলে পীরজাদা আব্বাস সিদ্দিকীর হুশিয়ারি “অবিলম্বে সমস্ত শূণ্যপদে নিয়োগ করতে হবে এবং দোষী পুলিশদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক ব্যবস্থা গ্রহন করতে হবে নইলে আগামীদিনে কলকাতার রাজপথ স্তব্ধ করে দেব।”

শেয়ার করুন
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশনের চাকরি প্রার্থীদের অনশন মঞ্চে পুলিশী হামলার বিরুদ্ধে ইতিমধ্যেই একাধিক মুসলিম নেতা মুখ খুলেছেন । ফুরফুরা শরীফের পীরজাদা ত্বহা সিদ্দিকীর পর এবার সরাসরি মুখ্যমন্ত্রী আক্রমণ করলেন ফুরফুরা শরীফ আহলে সু্ন্নাতুল জামাতের কর্ণধার পীরজাদা আব্বাস সিদ্দিকী । তিনি প্রশ্ন তুলেছেন এসএসসির আন্দোলনকারীদের সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী আলোচনায় বসতে পারেন তাহলে মাদ্রাসার চাকরি প্রার্থীদের সঙ্গে কেন আলোচনায় বসছেন না ?

তিনি এক প্রেস বিবৃতিতে বলেছেন , “গত শুক্রবার যখন অনশনকারী মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশনের পরীক্ষার্থীরা নামাজ পড়ছিলেন ঠিক সেই সময় নুন্যতম আলোচনা না করেই তাঁদের পিছন থেকে গেঞ্জী জিনস পরা কলকাতা পুলিস লাঠিচার্জ করে। অনশনকারীরা প্রতিবাদ করলে তাঁদের নিত্যপ্রয়োজনীয় সমস্ত সামগ্রী কেড়ে নেওয়া হয় এবং অনশন মঞ্চ পুরোপুরি ভেঙে দেয়। ভীত সন্ত্রস্ত হয়ে সেখান থেকে শহিদ মিনারে জমায়েত হলে সেখানেও লাঠিচার্জ করে৷ তখন সকলে দৌড়ে গিয়ে টিপু সুলতান মসজিদে প্রবেশ করে কিন্তু পুলিস মসজিদ কমিটিকে চাপ দিয়ে মসজিদের ভিতরে প্রবেশ করে এবং সেখানেও লাঠিচার্জ করে গলা ধাক্কা দিয়ে বের করে শিয়ালদহের বাসে তুলে দেয়।”

তিনি  আরও বলেন, “অনশন মঞ্চ থেকেই মনোজ চক্রবর্তী , মিজানুর রহমান ও মইনুল ইসলামকে গ্রেফতার করা হয়। পুলিশি অত্যাচারে গুরুতর আহত মইনুল ইসলামকে কোথায় ভরতি করা হয়েছে, কেমন আছে, সে বিষয়েও পুলিশ কিছু জানায়নি৷” তাঁর দাবি “কেন গণতান্ত্রিক দেশে হবু শিক্ষকদের প্রতি স্বৈরাচারী আক্রমন করা হল? সব থেকে বড় কথা আজ কেন মাদ্রাসা সার্ভিস পরীক্ষায় উত্তীর্ন পরীক্ষার্থীদের অনশন করতে হল?”

পীরজাদা আব্বাস সিদ্দিকীর অভিযোগ “বিগত কয়েক বছর থেকেই রাজ্য সরকার ইচ্ছাকৃত ভাবে এই নিয়োগ প্রক্রিয়া জটিল করে রেখে দুর্নীতির আখড়াতে পরিনত করেছে মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশনকে। রাজ্য সরকারের নিয়োগ প্রক্রিয়ার দুর্নীতির ফলশ্রুতি হল হবু শিক্ষকদের অনশন মঞ্চ।”

তিনি রাজ্য সরকারকে ও কমিশনকে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন “যে বা যারা এই নিরীহ মাদ্রাসা সার্ভিস পরীক্ষায় উত্তীর্ন ছেলেদের ভবিষ্যৎ নিয়ে ছেলেখেলা করছে মুখ্যমন্ত্রী তাঁদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিন আর অবিলম্বে সমস্ত শূণ্যপদে নিয়োগ করতে হবে এবং দোষী পুলিশদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক ব্যবস্থা গ্রহন করতে হবে নইলে আগামীদিনে কলকাতার রাজপথ স্তব্ধ করে দেব।”

 


শেয়ার করুন
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment