কলকাতা 

রাহুল গান্ধীকে উদ্দেশ্য করে শুভেন্দুর কুকথা, তীব্র ভাষায় আক্রমণ কংগ্রেস তৃণমূল সিপিএমের চাপে বিজেপি

শেয়ার করুন

বিশেষ প্রতিনিধি : রাহুল গান্ধীর ভারত জড়ো ন্যায় যাত্রার ইতিমধ্যেই আসামে এতটাই প্রভাব ফেলেছিল যে বিজেপি অস্বস্তিতে পড়ে যায়। বেনজীরভাবে রাহুল গান্ধীর বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করে অসমের প্রাক্তন কংগ্রেস নেতা বর্তমান বিজেপির মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত বিশ্ব শর্মা। অসম পেরিয়ে রাহুলের যাত্রা বাংলায় প্রবেশ করার পর যে জনজোয়ার দেখা দিয়েছে তাতে বেশ খানিকটা হতচকিত হয়ে পড়েছে গেরুয়া শিবির। বিশেষ করে উত্তরবঙ্গের কোচবিহার জলপাইগুড়িতে কংগ্রেসের মধ্যে যে উন্মাদনা লক্ষ্য করা গেছে তাতে বিজেপির পায়ের তলার মাটি যে সরে যাচ্ছে সেটা দিন দিন স্পষ্ট হয়ে পড়েছে।

আর তাই কি শুভেন্দু অধিকারী রাহুল গান্ধীকে তীব্র ভাষায় আক্রমণ করলেন তিনি বললেন,কে রাহুল গান্ধী ?কে হরিদাস পাল? দেশের একজন জাতীয় নেতা কে এভাবে আক্রমণ করা যায় কি দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। চার সম্পর্কে এ ধরনের মন্তব্য করতে পারেন না সেই রাহুল গান্ধীর বিরুদ্ধে শুভেন্দু অধিকারী এ ধরনের মন্তব্য করে বিজেপিকে এই রাজ্যের মানুষের কাছে হেয় প্রতিপন্ন করেছেন।

Advertisement

আর এনিয়ে রাজ্য জুড়ে তীব্র শোরগোল পড়ে গেছে। প্রদেশ কংগ্রেস নির্দেশ দিয়েছে প্রতিটি থানায় থানায় শুভেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে এফআইআর করার। অন্যদিকে তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গে কংগ্রেসের সম্পর্ক ভালো না হলেও রাহুল ইসুতে শুভেন্দুকে তীব্র ভাষায় আক্রমণ করেছেন তৃণমূলের মুখপাত্র কুনাল ঘোষ। এক কথায় শুভেন্দু অধিকারীর এই কুকথা নিয়ে রাজ্যজুড়ে কংগ্রেস কর্মী থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষের মধ্যে তীব্র প্রতিক্রিয়া তৈরি হয়েছে। মনে করা হচ্ছে আগামী লোকসভা নির্বাচনে এই রাজ্যে যদি বিজেপির সবচেয়ে খারাপ ফল করে তাহলে এই কারণেই করবে। শুভেন্দু অধিকারী নিজে থেকেই কংগ্রেসের পালে হাওয়া তুলে দিলেন এবং রাহুল গান্ধীকে সুযোগ করে দিলেন এই রাজ্যের সাধারণ মানুষের কাছে গ্রহণযোগ্যতা পাওয়ার।

শুভেন্দু অধিকারীর এই ধরনের মন্তব্যের প্রেক্ষিতে আগামী দিনে এই রাজ্যে বিজেপিকে যে সবচেয়ে বেশি ঠকতে হবে এবং জনমানষে বিজেপি যে গ্রহণযোগ্যতা হারাবে সে ব্যাপারে কোন সন্দেহ থাকার অবকাশ নেই।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত নিবন্ধ