কলকাতা 

জেলবন্দি মন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের কেবিন থেকে সিসিটিভি সরানোর নির্দেশ দিল কলকাতা হাইকোর্ট, নজরদারিতে থাকবে সিআরপিএফ জওয়ান

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : জেলবন্দী মন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের রুম থেকে সিসিটিভি সরিয়ে নেওয়ার নির্দেশ দিল কলকাতা হাইকোর্ট। তিনি এখন এসএসকেএম হাসপাতালে ভর্তি আছেন। এর আগে কেন্দ্রীয় এজেন্সি ই ডি জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের কেবিনে সিসিটিভি লাগিয়ে রেখেছিল তা নিয়ে কলকাতা হাইকোর্টের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে গতকালী কলকাতা হাইকোর্ট বলেছিল সিসিটিভি কেন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। একজন রোগীর প্রাইভেট জীবন কেন ক্যামেরা দিয়ে নজরদারি করা হবে তা নিয়ে কলকাতা হাইকোর্ট প্রশ্ন তোলে।

আজ শুক্রবার সেই মামলার রায় দিতে গিয়ে বিচারপতি তীর্থঙ্কর ঘোষের নির্দেশ প্রাক্তন খাদ্য মন্ত্রীর কেবিন থেকে সিসিটিভি সরিয়ে নিতে হবে সেই জায়গায় মোতায়েন করতে হবে সিআরপিএফ জওয়ানদের। কেন্দ্রীয় বাহিনী কারা ঢুকছেন বেরোচ্ছেন তা নজর রাখবে। রেজিস্টার খাতা ব্যবহার করতে হবে। প্রাক্তন মন্ত্রীর ঘরে যে সিসিটিভি লাগানো রয়েছে তা খুলে ফেলারও নির্দেশ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে দিয়েছে আদালত।

Advertisement

এসএসকেএম হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন প্রাক্তন খাদ্যমন্ত্রী। তাঁর উপর নজরদারি বজায় রাখতে হাসপাতাল কক্ষে সিসি ক্যামেরা বসিয়েছে ইডি। নিম্ন আদালতের নির্দেশে সিসিটিভি ফুটেজের লিঙ্ক ইডিকে দেওয়া হয়েছে। এর ফলে ব্যক্তিগত গোপনীয়তা খর্ব হচ্ছে, এই অভিযোগ তুলে হাই কোর্টে মামলা করেন জ্যোতিপ্রিয়। তাঁর আইনজীবীর বক্তব্য ছিল, তদন্তের স্বার্থে সিসি ক্যামেরার নজরদারি কেন? এর ফলে তাঁর মক্কেলের গোপনীয়তার অধিকার খর্ব হচ্ছে।

এই প্রেক্ষিতেই শুক্রবার বিচারপতি ঘোষের নির্দেশ, রুমের ভিতরে কোনও সিসিটিভি রাখা যাবে না। তবে, রুমের বাইরে কোনও সিসিটিভি আগে থেকেই লাগানো থাকলে তদন্তের স্বার্থে ওই ফুটেজ দেখতে পারবেন ইডির তদন্তকারী অফিসার। সিসিটিভির বদলে প্রাক্তন মন্ত্রীর নিরাপত্তা দেখভাল করবেন সিআরপিএফ জওয়ানরা। সমস্ত গতিবিধি নথিভুক্ত করতে হবে রেজিস্টার খাতায়। আদালত হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিয়েছে, প্রাক্তন মন্ত্রীর ঘরে যে সিসিটিভি লাগানো রয়েছে, তা খুলে নিতে।

 

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ