জেলা 

‘আন্তরিক’র উদ্যোগে জঙ্গলমহলে পূজার আনন্দ বিকশিত হল শতাধিক আদিবাসী শিশুর মূখে

শেয়ার করুন

১৪ ই অক্টোবর,২৩, শালবনী:: শুভ না শুভ নয় “মহালয়া” র পুন্য তিথি, এই বিতর্কে বাঙালি যখন দ্বিধায়, সেই দিনটি সত্যিকারের শুভ আর পুন্যতিথি হয়ে উঠলো জঙ্গলমহল শালবনীর প্রায় দেড়শত শিশু, কিশোর ও কিশোরীদের। বিগত কয়েক বছরে মেদিনীপুর শহরের ” আন্তরিক চ্যারিটেবল ট্রাস্ট” সমাজের পিছিয়ে পড়া এলাকার শিশু ও কিশোর দের জন্য শিক্ষা সামগ্রী বিতরণ, নতুন পোষাক বিতরণের মধ্য দিয়ে সমাজের পাশে থাকার বার্তা দিচ্ছে।

 

সেই ধারাবাহিকতায় এবার শালবনী ব্লকের চারটি আদিবাসী গ্রাম ভূগলুশোল রাধামোহনপুর জামবনী ও ট্যাংরাশোল এর প্রায় দেড়শত শিশু ও কিশোর কিশোরী দের নতুন বস্ত্র বিতরণ করলো মহালয়ার সকালে। রাধামোহনপুরে সমস্ত অতিথিদের আদিবাসী প্রথায় পা ধুইয়ে বরন করার পাশাপাশি অলচিকি নাচ,গান ও কবিতা আবৃত্তি করে শিশুরা। রাধামোহনপুরের অনুষ্ঠানে এলাকার শিক্ষক তন্ময় সিংহ এই আয়োজনের জন্য সংস্থাকে ও সংস্থার অন্যতম প্রানপুরুষ ও শিক্ষক কবি কৃষ্নেন্দু ঘোষকে ধন্যবাদ জানান।

Advertisement

আজকের অনুষ্ঠানে উপস্থিত শালবনী পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি নেপাল সিংহ ও আন্তরিক চ্যারিটেবল ট্রাস্ট এর তরফে কর্নধার সুমিতা সিংহ ,অন্যতম ট্রাস্টি দম্পতি কলেজ অধ্যক্ষ প্রশান্ত রায় ও মৈত্রেয়ী রায় এবং শকুন্তলা সান্যাল অধিকারী এই শিশুদের আতিথেয়তা ও আদিবাসী রীতির সংক্ষিপ্ত অনুষ্ঠানে মুগ্ধতা প্রকাশ করেন। আজকের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন জেলার অন্যতম ক্রীড়া সংগঠক সন্দীপ সিংহ, বিশিষ্ট শিক্ষক কৌশিক দোলই , লক্ষীনারায়ন হেমব্রম,অমর চৌধুরী,নির্মল মান্ডি, অসীম দোলই,রূপশ্রী হেমব্রম ও অন্যান্য অতিথিরা এবং এলাকাবাসীরা। দুটি জায়গা থেকে সমস্ত উপস্থিত শিশু ও কিশোর কিশোরী দের নতুন বস্ত্রের পাশাপাশি টিফিন দেওয়া হয়।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত নিবন্ধ