কলকাতা 

১২ বছর পর মাদ্রাসার গ্রুপ ডি পরীক্ষার ফল প্রকাশের নির্দেশ, কলকাতা হাইকোর্টের

শেয়ার করুন

বাংলার জনরব ডেস্ক : পরীক্ষা হয়েছিল বামফ্রন্ট সরকারের আমলে আজ থেকে ১২ বছর আগে। তারপর নানা কারণে ফল প্রকাশ করা হয়নি। পরবর্তীকালে গ্রুপ ডি নিয়োগে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ ওঠে এবং দুর্নীতির অভিযোগ থাকার ফলে মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশন কর্তৃক আয়োজিত গ্রুপ ডি পরীক্ষার ফল প্রকাশ হয়নি। আর তা নিয়ে মামলা হয়েছিল কলকাতা হাইকোর্টে। আজ মঙ্গলবার ১২ই সেপ্টেম্বর বিচারপতি হরিশচন্দ্রের ডিভিশন বেঞ্চ স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে, আগামী ছয় সপ্তাহের মধ্যে মাদ্রাসার গ্রুপ-ডি নিয়োগের ফলাফল প্রকাশ করতে হবে।

২০১০ সালে হয়েছিল পশ্চিমবঙ্গের মাদ্রাসাগুলির গ্রুপ-ডি পদে নিয়োগের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা। তার পরের বছর অর্থাৎ ২০১১ সালে লিখিত পরীক্ষা নেওয়া হয়েছিল গ্রুপ-ডি চাকরিপ্রার্থীদের। কিন্তু তার পর এক যুগ কেটে গেলেও আজ পর্যন্ত ফল জানতে পারেননি পরীক্ষার্থীরা। প্রথমে পরীক্ষায় অনিয়মের অভিযোগ ওঠায় ফল প্রকাশ বন্ধ রাখা হয়। পরে এ সংক্রান্ত একাধিক মামলাও দায়ের হয় আদালতে। বিচারাধীন বিষয় বলেই মামলাগুলির নিষ্পত্তি না হওয়া অবধি ফল না প্রকাশ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। বন্ধ ছিল নিয়োগ প্রক্রিয়াও। মঙ্গলবার কলকাতা হাই কোর্টের নির্দেশে সেই জট কাটল বলে আশা পরীক্ষার্থীদের।

Advertisement

মঙ্গলবার এ সংক্রান্ত মামলাটি ওঠে বিচারপতি হরিশ টন্ডনের ডিভিশন বেঞ্চে। তিনিই ২০১১ সালের মাদ্রাসার গ্রুপ-ডি নিয়োগ পরীক্ষার ফল প্রকাশের অনুমতি দেন। বিচারপতি বলেন, ‘‘আগামী ছয় সপ্তাহের মধ্যে এই পরীক্ষার ফল প্রকাশ করতে হবে।’’ তবে ফল প্রকাশ হলে ১২ বছর আগে হওয়া এই পরীক্ষায় যাঁরা বসেছিলেন তাঁরা নিয়োগেরও সুযোগ পাবেন কি না সে বিষয়টি এখনও স্পষ্ট নয়। যদিও বিশেষজ্ঞদের একাংশের মত, ফল প্রকাশ হওয়া মানেই নিয়োগের পথও প্রশস্ত। সেক্ষেত্রে রাজ্যের মাদ্রাসাগুলির গ্রুপ-ডি পদে নিয়োগের প্রক্রিয়াও শুরু হতে দেরি হওয়ার কথা নয়। যদি না রেজাল্টের মতো সেটি আবার মামলার ফাঁসে আটকে যায়।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত নিবন্ধ