কলকাতা 

পরকীয়া সম্পর্কে কথা জেনে ফেলায় তিন বছরের সন্তানকে ছাদ থেকে ছুড়ে ফেলে দিয়েছিল মা, তারপর সত্য প্রকাশিত হল ?

শেয়ার করুন

বাংলার জনরব ডেস্ক : মায়ের পরকীয়া সম্পর্কের কথা জেনে ফেলেছিল এক রত্তি সন্তান। এমনকি আপত্তিকর অবস্থায় মাকে দেখেছিলেন ওই তিন বছরের সন্তান আর এর দরুণ মা ওই সন্তানকে ছাদ থেকে ছুড়ে ফেলে দিয়েছিল। এই ভাবেই মৃত্যু হয়েছিল তিন বছরের এক শিশু সন্তানের। কিন্তু তারপরও শেষ রক্ষা আর হলো না কয়েক দিনের মধ্যেই নিজেই স্বামীর কাছে সবকিছু খুলে বলল।

আর এর ফলে স্ত্রী এখন জেলে একইসঙ্গে তার প্রেমিক।অভিযুক্ত মহিলার নাম জ্যোতি রাঠৌর। তাঁর বাড়ি মধ্যপ্রদেশের গোয়ালিয়রে। তাঁর স্বামী ধ্যান সিংহ পুলিশকর্মী। জ্যোতি তাঁর কাছেই নিজের অবৈধ সম্পর্ক এবং সন্তানকে খুনের কথা খুলে বলেন। সেই বয়ান রেকর্ড করে স্ত্রীকে পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছেন ওই পুলিশকর্মীই। পাশাপাশি, স্ত্রীর প্রেমিকের বিরুদ্ধেও অভিযোগ করেছেন তিনি। তদন্তের পর পুলিশ দু’জনকেই গ্রেফতার করেছে।

Advertisement

পুলিশ জানিয়েছে, জ্যোতির সঙ্গে তাঁর প্রতিবেশী উদয় ইন্দওলিয়ার বিবাহ-বহির্ভূত সম্পর্ক গড়ে উঠেছিল। শারীরিক ভাবেও নিয়মিত ঘনিষ্ঠ হতেন দু’জনে। সম্প্রতি ধ্যান নিজের একটি দোকানের উদ্বোধন করেন। গত ২৮ এপ্রিল ছিল ওই দোকানের উদ্বোধন অনুষ্ঠান। নিমন্ত্রিতদের মধ্যে ছিলেন প্রতিবেশী উদয়ও। অনুষ্ঠানে ফাঁকেই তাঁকে সঙ্গে নিয়ে ছাদে চলে যান জ্যোতি। সেখানে ঘনিষ্ঠও হন দু’জনে। মায়ের পিছু নিয়ে সেখানে হাজির হয় জ্যোতির তিন বছরের সন্তানও। জ্যোতি এবং উদয়কে ঘনিষ্ঠ অবস্থায় দেখে ফেলে সে।

ছেলের মুখ বন্ধ করতেই জ্যোতি তার তিন বছরের সন্তানকে ছুড়ে ফেলে দেন ছাদ থেকে। মাথায় গুরুতর জখম নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয় তাকে। পরের দিনই মৃত্যু হয় শিশুটির। সমস্যার শুরু হয় তার পর।

পুলিশকে জ্যোতি জানিয়েছেন, ওই ঘটনার পরই রোজ রাতে ছেলেকে নিয়ে ভয়ের স্বপ্ন দেখতে শুরু করেন তিনি। শেষে বাধ্য হয়েই নিজের দুষ্কর্মের কথা স্বামীর কাছে স্বীকার করেন তিনি। পুলিশ সম্প্রতিই জ্যোতি এবং তাঁর প্রেমিক উদয়কে গ্রেফতার করেছে। তাদের বিরুদ্ধে খুনের মামলাও দায়ের হয়েছে।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত নিবন্ধ