দেশ 

ব্রিজভূষণের গ্রেফতারি চেয়ে দিল্লির যন্তর মন্তরে অবস্থানরত কুস্তিগীরদের সঙ্গে মধ্যরাতে পুলিশের সংঘাত ঘিরে দেশ জুড়ে চাঞ্চল্য

শেয়ার করুন

বাংলার জনরব ডেস্ক : দিল্লির যন্তর মন্তরে ইনসাফ চেয়ে বিক্ষোভরত কুস্তিগীরদের সঙ্গে দিল্লি পুলিশের সংঘাত ঘিরে দেশ জুড়ে চাঞ্চল্য। কুস্তিগীরদের প্রতি যৌন নিপীড়ন করা হয়েছে আরে যৌন নিপীড়ন করার নেপথ্যে মূল অভিযুক্ত হলেন ভারতীয় কুস্তি সংস্থার সভাপ্রতি ব্রিজ ভূষণ সরণ সিংয়ের গ্রেফতারিতে বেশ কয়েক সপ্তাহ ধরে দিল্লির যন্তর মন্তরে অবস্থান বিক্ষোভ করে চলেছে দেশের জন্য নিবেদিত প্রাণ এবং আন্তর্জাতিক স্তরে পদ প্রাপক কুস্তিগীররা।

দিল্লির যন্তর মন্তরে চলা এই আন্দোলনকে ভেঙে দেয়ার জন্য হঠাৎ বুধবার মধ্যরাতে দিল্লী পুলিশ বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে বচসায় জড়িয়ে পড়ে তা থেকে হাতাহাতিতে রুপান্তরিত হয়।

Advertisement

বিক্ষোভকারী কুস্তিগিরদের অভিযোগ, দিল্লি পুলিশের একটি দল মত্ত অবস্থায় বুধবার সন্ধ্যা থেকেই তাঁদের সঙ্গে অভব্য আচরণ করতে শুরু করেন। রাতে তাঁরা আচমকাই এসে মারধর করেন এবং মহিলা কুস্তিগিরদেরও গালিগালাজ করেন। তাঁদের দাবি, এতে দুই আন্দোলনকারী আহত হয়েছেন। এক জনকে হাসপাতালে ভর্তি করতে হয়েছে।

কুস্তিগির বিনেশ ফোগট সংবাদমাধ্যমকে বলেন, “সারা দিন বৃষ্টি হওয়ার ফলে মাটি ভিজে থাকায় আমরা বিক্ষোভস্থলে খাট পাতার চেষ্টা করছিলাম। তখনই পুলিশ আমাদের উপর হামলা করে। একজনও মহিলা পুলিশকর্মী ছিলেন না। এই সময় ধাক্কধাক্কিতে কেউ কেউ মাথাতেও আঘাত পান।”

তিনি আরও বলেন, “আমরা কোনও দাগি আসামি নই যে পুলিশ আমাদের সঙ্গে এরকম আচরণ করবে। এই দিনটি দেখার জন্যই কি আমরা দেশের হয়ে এত পদক জিতলাম?”

কুস্তিগির বজরং পুনিয়া সংবাদ সংস্থা এএনআইকে বলেন, “সারা দেশের মানুষের আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানো উচিত। দিল্লি পুলিশ ব্রিজভূষণের বিরুদ্ধে কোনও পদক্ষেপ না করে আমাদের উপর বলপ্রয়োগ করছে।” বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে চারটি পদক জেতা বজরং বলেন, “আমি সরকারকে অনুরোধ করব যেন আমার সব পদক ফিরিয়ে নেওয়া হয়।”

পুলিশের দাবি অবশ্য অন্য। দিল্লি পুলিশের ডিসিপি প্রণব তয়াল বলেন, “বুধবার রাতে আপ নেতা সোমনাথ ভারতীর নেতৃত্বে কয়েক জন অনুমতি ছাড়াই বিক্ষোভস্থলে এসে উপস্থিত হন। ঘটনাস্থলে পৌঁছেই তাঁরা পুলিশের ব্যারিকেড ভাঙার চেষ্টা করেন। সোমনাথ এবং তাঁর লোকেদের সমর্থন জোগান বিক্ষোভরত কুস্তিগিরেরা। পুলিশ যথাসময়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে অনভিপ্রেত ঘটনা রুখতে সক্ষম হয়েছে।” ডিসিপি আরও জানান, সোমনাথ এবং তাঁর দুই সমর্থককে ঘটনাস্থল থেকে আটক করা হয়েছে।

ঘটনার পর দিল্লি পুলিশ যন্তরমন্তর এলাকা সিল করে দিয়েছে এবং কাউকে বিক্ষোভের জায়গায় ঢুকতে অনুমতি দেওয়া হবে না। এএনআইকে ডিসিপি প্রণব বলেন, “কুস্তিগিরদের লিখিত অভিযোগ জমা দিতে বলা হয়েছে। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে যথাযথ পদক্ষেপ করা হবে। যেই পুলিশকর্মীদের বিরুদ্ধে তাঁদের অভিযোগ তাঁর স্বাস্থ্যপরীক্ষা করানো হবে।”


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত নিবন্ধ