জেলা 

হাজী সম্মেলন ও দোওয়ার মজলিশ দেগঙ্গায়

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ইসলাম শান্তির ধর্ম,হিংসার কোন স্থান নেই,দেগঙ্গায় হজ্ব প্রশিক্ষণ শিবিরে বললেন পীরজাদা এ কে এম ফারহাদ

বিশেষ প্রতিবেদন, দেগঙ্গা : ইসলাম ধর্মের পাঁচটি মূল স্তম্ভের অন্যতম হজ্ব। পবিত্র হজ্ব সম্পন্ন করতে সুদূর আরব দেশে পাড়ি জমান ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা। আরবী বছরের জিলহজ মাসে সম্পন্ন হয় পবিত্র হজ্ব। হাজী সাহেবদের সহযোগিতায় সরকারি এবং বেসরকারি ভাবে বিভিন্ন পরিষেবা প্রদানে তৎপরতা দেখা যায়।

উল্লেখ্য ২০২৪ সালে পশ্চিমবঙ্গ থেকে সম্ভাব্য প্রথম উড়ান-মে মাসের ৯ তারিখ রহনা দেবে পবিত্র কাবা শরীফের উদ্যেশে।এবছর বাংলা থেকে মোট হাজী – পাঁচ হাজার নয়শো সতেরো জন লিপিবদ্ধ হয়েছে। তথ্য মারফত জানা গেছে একটা ক্যাটাগরি -আজিজিয়া থাকছে এবং কলকাতা থেকে মদিনায় উড়াল পৌঁছাবে।কোরবানি -১৬৫০০, যা প্রায় সাড়ে সাতশো রিয়ালের মতো।তিন লাখ ছিয়াত্তর হাজার সরকারি খরচের সাথে সাথে অনান্য সুযোগ-সুবিধার জন্য-চার লাখ সত্তর হাজারের মতো ভারতীয় মুদ্রা প্রয়োজন। বলাবাহুল্য এবছর হজ্বের সরকারি প্রশিক্ষণ ফেব্রুয়ারি মাসের প্রথম সপ্তাহ থেকে শুরু হতে পারে।ভ্যাকসিন মূলত ঈদুল ফিতরের পর শুরু হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল।

Advertisement

হাজী সাহেবদের উদ্যেশে উঃ ২৪ পরগনা জেলার দেগঙ্গা থানা মোজাদ্দিয়া খাদেমুল হুজ্জাজ কমিটির পরিচালনায় পাঁচ শতাধিক মানুষের উপস্থিতিতে হাজী সম্মেলন ও দোওয়ার মজলিশ অনুষ্ঠিত হয় দক্ষিণ মাটি কুমড়া,পানি ট্যাঙ্ক ময়দানে। উক্ত ধর্মীয় সভায় রাজারহাট নিউটাউন মাঝেরআইট পীরডাঙ্গা দরবার শরীফের মুখ্য নির্দেশক তথা রাজ্য হজ্ব কমিটির সেবক, উঃ ২৪ পরগনা জেলা পরিষদের কর্মাধ্যক্ষ পীরজাদা আলহাজ্ব একেএম ফারহাদ বলেন, বর্তমান সামাজিক প্রেক্ষাপটে ধর্মীয় মেরুকরণ না করে সকলের ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টায় সুষ্ঠু সমাজ আমাদের গড়ে তোলা একান্ত কাম্য।তাই এইধরনের সামাজিক কর্মসূচির মধ্যে দিয়ে ভালো ভাবনা চিন্তা অত্যন্ত প্রয়োজন। তিনি বলেন যেকোন ধর্মেই আছে অন্যের ধর্মকে সম্মান প্রদর্শন করা কিন্তু বর্তমান সময়ে একধরনের উগ্র সাম্প্রদায়িক শক্তি ভারতের মহামিলনের মিলনক্ষেত্র কে ধ্বংস করতে চায়, এটা কখনোই কাম্য নয়।তাই বাংলার জনদরদী মুখ্যমন্ত্রীর মতো সম্প্রীতির বন্ধন সৃষ্টিকারী মানুষ দেশের জন্য প্রয়োজন। পাশাপাশি তিনি বলেন কলকাতা পুরসভার মহানাগরিক ফিরহাদ হাকিম প্রতি বছরের ন্যায় এবারও পবিত্র হজ্ব পালনকারী মানুষের পরিষেবার জন্য তৈরি আছেন।

বলাবাহুল্য একেএম ফারহাদ, তাঁর বক্তব্যের মধ্যে ৩১ শে জানুয়ারি কলকাতার নেতাজী ইন্ডোর স্টেডিয়ামে আন্তর্জাতিক কেরাত সম্মেলনে জাতি ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে সকলকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন।

উক্ত সামাজিক কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন রাজারহাট নিউটাউন মাঝেরআইট পীরডাঙ্গা দরবার শরীফের পীরজাদা আলহাজ্ব মাওঃ মোঃ মাসুম বাখতেয়ারি,মাওঃ আমিনুল আম্বিয়া,দেগঙ্গা খাদেমুল হুজ্জাজ কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব মাওঃ আশাদুল্লাহ মন্ডল, সম্পাদক আলহাজ্ব মাওঃ মহঃ আব্দুল্লাহ বিশ্বাস, যুগ্ম সম্পাদক আলহাজ্ব মোঃ জাকির হোসেন,কোষাধ্যক্ষ আলহাজ্ব মোঃ আঃ খালেক, হাজী সফর আলী প্রমুখ।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ