জেলা 

Bogtui Violence : রামপুরহাটের বগটুই কাণ্ডে যুক্ত থাকার অপরাধে মুম্বাই থেকে সিবিআই গ্রেফতার করল চারজনকে

বাংলার জনরব ডেস্ক : রামপুরহাটের (Rampurhat Incident) বগটুই গ্রামে অগ্নিকাণ্ডে মৃত্যুর ঘটনায় প্রথম গ্রেপ্তার। ঘটনায় জড়িত সন্দেহে মুম্বই (Mumbai) থেকে সিবিআইয়ের জালে ধরা পড়ল চারজন। এদের মধ্যে ২ জন – বাপ্পা শেখ ও সাবু শেখের নাম ছিল এফআইআরে। বাকি ২ জন এদের পরচিতি, মুম্বইয়ের বাসিন্দা বলে প্রাথমিকভাবে জানা যাচ্ছে। বৃহস্পতিবার চারজনকে মুম্বই আদালতে পেশ করে নিয়ে ট্রানজিট রিমান্ডে কলকাতায় নেওয়ার আবেদন জানিয়েছেন তদন্তকারীরা। শুক্রবার তাদের কলকাতায় আনা হতে পারে। মনে করা হচ্ছে এই গ্রেপ্তারির পরেই বগটুই কান্ডের অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য সামনে চলে আসবে। ওয়াকিবহাল মহল বলছে, এই গ্রেপ্তারি তে সিবিআইয়ের…

আরও পড়ুন
জেলা 

Rampurhat Clash: বগটুই যখন জ্বলছিল, পুলিশ কেন ‘ নিষ্ক্রিয়’ ছিল ? নেপথ্যে জেলার প্রভাবশালী রাজনীতিবিদের ভূমিকা খতিয়ে দেখছে সিবিআই

বাংলার জনরব ডেস্ক : রামপুরহাটের বগটুই গ্রামে যখন সাধারণ মানুষকে পুড়িয়ে মারা হচ্ছে ঠিক সেই সময় বীরভূম জেলা পুলিশের কর্তারা ঘটনাস্থলে না-গিয়ে অদূরে পুলিশেরই এক অতিথিশালায় বৈঠক করেছিলেন কেন তা নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে  সিবিআই। এদিকে এই ঘটনায় রামপুরহাট থানার আইসি ও এস ডি পি ও কে জেরা করেছে সিবিআই। সেখান থেকে চাঞ্চল্য তথ্য উঠে এসেছে বলে জানা গেছে।বগটুইয়ে ২১ মার্চের সেই অভিশপ্ত রাতে পুলিশের এমন ‘নিষ্ক্রিয়তা’র পিছনে প্রভাবশালী-যোগের তথ্য মিলছে বলে জানাচ্ছেন সিবিআইয়ের অফিসারেরা। তদন্তকারীদের প্রশ্নের উত্তরে এসডিপিও সায়ন আহমেদ নাকি বলেছেন , বগটুইয়ে যখন পরের পর বাড়িতে আগুন…

আরও পড়ুন
জেলা 

Rampurhat Clash: আনারুলকে অনেক আগেই সরাতে চেয়েছিলাম আশিসের অনুরোধে পারিনি, দাবি অনুব্রতের

বাংলার জনরব ডেস্ক : বিধানসভা নির্বাচনের পরেই রামপুরহাট ১ নম্বর ব্লকের তৃণমূল সভাপতির পদ থেকে আনারুল হোসেনকে সরাতে চেয়েছিলেন অনুব্রত মণ্ডল। কিন্তু স্থানীয় বিধায়ক আশিস বন্দ্যোপাধ্যায়ের লিখিত অনুরোধেই আনারুলকে সরাতে পারেননি তিনি। তার আগে যদিও অনুব্রতকে লেখা আশিসের সেই চিঠি প্রকাশ্যে চলে আসে। যে চিঠি দেখে বিস্মিতও হন অনুব্রত। তাঁকে লেখা আশিসের চিঠি সংবাদমাধ্যমের হাতে দেখে তিনি বলেন, ‘‘এটা কোথায় পেলেন?’’ তার পর জানান, আশিসের অনুরোধেই তিনি আনারুলকে সরাতে পারেননি। আশিসের লেখা চিঠি প্রকাশ্যে আসার পর অনুব্রত দাবি করেন, তিনি অনেক আগেই রামপুরহাট ১ নম্বর এর ব্লক সভাপতির পদ থেকে…

আরও পড়ুন
জেলা 

Rampurhat Clash: পুলিশকে বাধা দিয়েছিল আনারুল, ভাদু টাকার ভাগ দিত অনুব্রত, আইসি-কেও স্ত্রী নাজমা বিবির মৃত্যুর পর বিস্ফোরক শেখলাল শেখ

বাংলার জনরব ডেস্ক : সোমবার বীরভূমের রামপুরহাট মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে মৃত্যু হয়েছে বগটুইয়ের বাসিন্দা নাজমা বিবির। স্ত্রীর মৃত্যু খবর আসার পর  স্বামী শেখলাল শেখ বিস্ফোরক অভিযোগ করলেন। তাঁর অভিযোগ, নিহত বড়শাল গ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান ভাদু শেখ আসলে ‘ক্রিমিনাল’। বীরভূম তৃণমূলের শীর্ষ নেতা থেকে পুলিশ আধিকারিকরা পর্যন্ত ভাদুর তোলাবাজির ভাগ পেতেন বলেও অভিযোগ করেছেন শেখলাল। তাঁর দাবি, গত সোমবার অগ্নিকাণ্ডের সময় পুলিশকে গ্রামে ঢুকতে বাধা দিয়েছেন ধৃত তৃণমূল নেতা আনারুল হোসেনই। বগটুই কাণ্ডে গুরুতর জখম হয়েছিলেন নাজমা। তাঁর দেহের ৬৫ শতাংশ পুড়ে গিয়েছিল। এক সপ্তাহ ধরে রামপুরহাট হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন…

আরও পড়ুন
জেলা 

Rampurhat Clash: বগটুই-কাণ্ডে পুড়িয়ে মারা হয়েছে মাকে, এ বার হুমকি দেওয়া হচ্ছে তাঁকেও, দাবি মফিজার

বাংলার জনরব ডেস্ক : বরশাল গ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান ভাদু সেখের মৃত্যুর পর মাকে নৃশংস ভাবে খুন করা হয়েছে। এবার মৃত মিনারা বিবির মে মফিজা বিবিকে দুষ্কৃতীরা হুমকি দিচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। অভিযোগ পেয়ে রামপুরহাট থানা মফিজা বিবির সুরক্ষার জন্য তাঁর শ্বশুরবাড়িতে পুলিশি পাহারার ব্যবস্থা করেছে। ঘটনার রাতে বগটুই গ্রামে প্রথম ফটিক শেখের বাড়িতে আগুন লাগানো হয়েছিল বলে অভিযোগ। তাতেই মারা যান তাঁর স্ত্রী মিনা বিবি। তাঁদের মেয়ে মফিজার বিয়ে হয়েছে স্থানীয় দখলবাটি গ্রামে। ঘটনার দিন মফুজা মুম্বইয়ে ছিলেন। বৃহস্পতিবার মুখ্যমন্ত্রী বগটুই গ্রামে আসার দিন মফিজা বিবি মুম্বই থেকে গ্রামে আসেন।…

আরও পড়ুন
জেলা 

Rampurhat Violence : বগটুই কান্ডে সিবিআইয়ের স্ক্যানারে বীরভূম জেলার উচ্চপদস্থ পুলিশকর্তারাও, জোর কদমে তদন্তে কেন্দ্রীয় সংস্থা

বাংলার জনরব ডেস্ক : রামপুরহাট এর বগটুইয়ের ৮ জনকে পুড়িয়ে মারার ঘটনায় জেলা পুলিশ কর্তাদের ভূমিকা নিয়ে সিবিআই চিন্তা ভাবনা করতে শুরু করেছে। বড়শাল গ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান ভাদু সেখ খুনের পর এলাকায় যে বেশ কয়েক ঘণ্টা ধরে তাণ্ডব চালায় তৃণমূলের একটি গোষ্ঠী এই ঘটনার খবর পুলিশ জানা সত্ত্বেও কেন সময়মতো পুলিশ পাঠানো হয়নি তা নিয়েই সিবিআই তদন্ত করতে শুরু করেছে বলে জানা গেছে। সিবিআই সূত্রে খবর ইতিমধ্যেই ঐদিন ঐদিনের বিভিন্ন নেতা ও পুলিশ কর্তাদের সঙ্গে যে কথা পকথন হয়েছিল তার মোবাইল টাওয়ার লোকেশন খুঁজে বার করার চেষ্টা করা হচ্ছে। মনে…

আরও পড়ুন
জেলা 

Bogtui Violence : সিবিআইয়ের ডিআইজি অখিলেশ সিংয়ের নেতৃত্বে ৩০ সদস্যের টিম বগটুই কান্ডের তদন্ত শুরু করল

বাংলার জনরব ডেস্ক : কলকাতা হাইকোর্টের তদন্তভার পাওয়ার পর আজ শনিবার রামপুরহাটের বগটুইয়ে পৌঁছে যান সিবিআইয়ের ৩০ জনের টিম । এর নেতৃত্ব দিচ্ছেন সিবিআইয়ের ডিআইজি অখিলেশ সিংহ । তিনটি ভাগে বিভক্ত হয়ে তদন্ত শুরু করলেন তাঁরা।  সূত্রের খবর, অখিলেশ সিংয়ের নেতৃত্বে তিরিশজন সদস্যের সিবিআই টিমের একটি দল যাচ্ছে ঘটনাস্থলে। যেখানে ২১ তারিখের রাতে অগ্নিকাণ্ড হয়েছিল। আরেকটি দল যাচ্ছে সাঁইথিয়ার গোলাপজল গ্রামে। সেখানে আশ্রয় নিয়েছেন স্বজনহারারা। কোনওমতে দিন কাটাচ্ছেন মতিলাল শেখ, বানিরুল শেখ, তোয়েব শেখ, কিরণ শেখরা। তৃতীয় দলটির গন্তব্য হতে চলেছে হাসপাতাল। যেখানে রয়েছেন ২১ মার্চের ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী নাজিমা বিবি।…

আরও পড়ুন
জেলা 

Rampurhat Clash: বগটুই-কাণ্ডে সিটের তদন্তেই উঠে এসেছে মূল অভিযুক্ত আজাদ চৌধুরি, আনারুলের সঙ্গে জেলার এক প্রভাবশালীর নেতারও নাম! কে সেই প্রভাবশালী নেতা?

বাংলার জনরব ডেস্ক : রামপুরহাটের বগটুই গ্রামে মানুষগুলোকে পুড়িয়ে মারার আগে ও পরে রামপুরহাট-কাণ্ডে মূল অভিযুক্ত এবং ধৃত আজাদ চৌধুরীর সঙ্গে তৃণমূলের ব্লক সভাপতি আনারুল হোসেনের বেশ কয়েক বার ফোনে কথা হয়েছিল বলেই গোয়েন্দা সূত্রে দাবি। ওই সূত্রে খবর,  শুধু তা-ই নয়, ওই ঘটনায় জেলার আরও এক প্রভাবশালী নেতার নাম উঠে এসেছে। তাঁর সঙ্গেও ধৃতদের যোগাযোগের স্পষ্ট প্রমাণ মিলেছে বলে গোয়েন্দাদের একাংশের দাবি। এই হত্যাকাণ্ডে প্রথম থেকেই নাম জড়িয়েছে আনারুলের। মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশের পরে পুলিশ তাঁকে গ্রেফতারও করেছে। শুক্রবার তাঁকে রামপুরহাট আদালতে তোলা হয়। ১৪ দিন আনারুলকে পুলিশি হেফাজতে রাখার নির্দেশ…

আরও পড়ুন
কলকাতা 

Rampurhat Clash: বগটুই- হত্যাকাণ্ডে সিবিআইকে বিশেষ ক্ষমতা দিল হাইকোর্ট, কী সেই ক্ষমতা জানতে চান? ক্লিক করুন

বাংলার জনরব ডেস্ক : গত সোমবার বীরভূমের রামপুরহাট এর বগটুই গ্রামে যে নারকীয় ও নৃশংসভাবে কয়েক জনকে পুড়িয়ে মারা হয়েছে তার পরিপ্রেক্ষিতে এই ঘটনার তদন্ত সিবিআই কে দিয়ে করানোর নির্দেশ দিয়েছে কলকাতা হাইকোর্ট। শুধু নির্দেশই নয় একইসঙ্গে এই মামলায় সিবিআইকে অতিরিক্ত ক্ষমতা দিয়েছে কলকাতা হাইকোর্ট। হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি প্রকাশ শ্রীবাস্তব এবং রাজর্ষি ভরদ্বাজের ডিভিশন বেঞ্চ নির্দেশ দিয়েছে, শুধু অভিযুক্ত নন, এই ঘটনায় কাউকে সন্দেহ হলে তাঁকেও গ্রেফতার এবং নিজেদের হেফাজতে নিতে পারবে সিবিআই। মামলার শুনানি শুরু হলে প্রধান বিচারপতি প্রকাশ শ্রীবাস্তব বলেন, “আমরা ওই ঘটনার সবিস্তার পর্যবেক্ষণ করেছি। পরিস্থিতি বিবেচনা…

আরও পড়ুন
অন্যান্য কলকাতা 

রাজধর্ম, রাজ্হাঁস এবং রাজনীতি……

সম্প্রতি ছাত্রনেতা আনিস খান থেকে শুরু করে তুহিনা খাতুন এবং কয়েক দিন আগে রামপুরহাটের বগটুইয়ের গণহত্যা নিয়ে রাজ্য জুড়ে শোলগোল পড়েছে । শুধু রাজ্য নয় দেশ তথা বিশ্বজুড়ে বগটুইয়ের লোমহর্ষক , মর্মান্তিক , নৃশংস নরসংহার সব মানুষের হৃদয়কে নাড়িয়ে দিয়েছে ! কিন্ত রাজনীতির কারবারীদের কাছে ‘সেই ট্রাডিশন সমানেই চলছে’। মানুষের মৃত্যু মিছিলের পথ ধরেই রাজনীতির পালাবদল ঘটে। রাজা আসে , রাজা যায়,সাধারণ মানুষের উপর অত্যাচার কমে না , গণহত্যার  ট্রাডিশন চলতেই থাকে……। এই পরম্পরাকে খানিকটা ব্যঙ্গ করে,হালকা চালে সাধারণ মানুষের বিবেকে চাবুক মেরেছেন বিশিষ্ট সাংবাদিক ও কলামিষ্ট মুদাসসির নিয়াজ । তাঁর…

আরও পড়ুন