আন্তর্জাতিক 

লোকসভা নির্বাচনে আগে দেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিপন্ন হতে পারে রিপোর্ট মার্কিন সংস্থার ; মানুষকে সর্তক থাকতে হবে , সম্প্রীতির স্বার্থেই বিজেপিকে হারানোর আহ্বান সোমেনের

শেয়ার করুন
  • 30
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : লোকসভা নির্বাচনের আগেই ভারতে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিপন্ন হতে পারে বলে গোপন রিপোর্টে মার্কিন গুপ্তচর সংস্থা স্বীকার করেছে। ওই রিপোর্টে বলা হয়েছে ,হিন্দুত্ববাদী শক্তি নির্বাচনের আগে তাদের ভাবাবেগকে কাজে লাগিয়ে এ কাজ করতে পারে ।

মার্কিন ডিরেক্টর অব ন্য়াশনাল ইন্টেলিজেন্স ড্য়ান কোটস নিজের রিপোর্টে এই সম্ভাবনার কথা উল্লেখ করেছেন।২০১৯ সালে বিশ্বজুড়ে কোথায় কোথায় বিপদ বা আতঙ্কের পরিবেশ সৃষ্টি হতে পারে, তা নিয়ে বিশ্বজুড়ে সমীক্ষা চালিয়েছে এই সংস্থা। তারপরই রিপোর্ট বানিয়ে তা সেনেটের সিলেক্ট কমিটিতে জমা করেছে। তাতে স্পষ্ট উল্লেখ করা হয়েছে যে, নরেন্দ্র মোদীর ভারতীয় জনতা পার্টি যদি হিন্দু জাতীয়তাবাদী ভাবাবেগকে সামনে রেখে বেশি জোরদার প্রচারে নামে তাহলে তা সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার পরিবেশ তৈরিতে অনুঘটকের কাজ করবে।

কোটসের রিপোর্ট বলা হয়েছে, নরেন্দ্র মোদীর জমানায়েএমন কিছু নীতি  নেওয়া হয়েছে যা বিজেপি শাসিত রাজ্য়েই সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করেছে। এরপরেও যদি বিজেপি নেতারা হিন্দুত্ব নিয়ে প্রচার করতে থাকে তাহলে  বিপদ আরও বাড়বে।

পাশাপাশি বলা হয়েছে, এই ধরনের ঘটনা বাড়লে ভারতের মুসলমান সম্প্রদায় আরও বিচ্ছিন্ন হযে পড়বে। যার সুযোগ বিচ্ছিন্নতাবাদী শক্তি ভালোভাবে নিতে পারে। এর ফলে দেশের অভ্য়ন্তরীণ বিপদই আরও বেশি করে বাড়তে চলেছে।

আগামী লোকসভা নির্বাচন পর্যন্ত তো বটেই, তারও পর অবধি ভারত-পাকিস্তান সম্পর্ক নিয়ে টানাপোড়েন থাকবে। লোকসভা নির্বাচন পর্যন্ত তা আরও বাড়তে পারে বলেই মার্কিন গোয়েন্দা রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়েছে।

এদিকে এই রিপোর্ট নিয়ে প্রতিক্রিয়া দিতে গিয়ে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্র বলেন , এটাই বিজেপির কাজ । এখন উন্নয়নের শ্লোগান ভুলে গেছে । হিন্দুত্বকে প্রচার করছে । মানুষ সর্তক থাকতে হবে । কারণ একমাত্র মানুষই বিজেপি বা হিন্দুত্ববাদী সংগঠনগুলির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে । তিনি আরও বলেন , এসব করেও আগামী দিনে বিজেপি বা নরেন্দ্র মোদী সরকার ক্ষমতায় আসতে পারবে না।


শেয়ার করুন
  • 30
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment