জেলা 

লোকসভা ভোটের ফল ঘোষণার দিনেই তৃণমূল সরকারের পতন হবে ; বাংলায় বিজেপি ক্ষমতায় এলেই চিটফান্ডে প্রতারিতদের টাকা ফেরত দেওয়ার প্রতিশ্রুতি অমিতের

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক :  লোকসভা নির্বাচনের ফল ঘোষণার দিনেই তৃণমূল সরকারের পতন হবে বলে আজ অধিকারী গড়ে দাঁড়িয়ে হুঁশিয়ারি দিয়ে গেলেন বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ । তিনি বলেন, আমাদেরকে সভা  করতে দেওয়া হচ্ছে না । প্রতিটি পদক্ষেপে বাধা হচ্ছে । বাংলার মানুষ কংগ্রেসকে সুযোগ দিয়েছে ,সিপিএমকে সুযোগ দিয়েছে , দিদিকেও সুযোগ দিয়েছে , একবার আমাদের সুযোগ দিন দেখবেন সোনার বাংলা গড়ে দেব । তিনি বলেন , রাজ্যে বিজেপি সরকার ক্ষমতায় এলেই চিটফান্ড কেলেংকারিতে যেসব মানুষ প্রতারিত হয়েছে তাদের সকলের টাকা ফিরিয়ে দেওয়া হবে । মঙ্গলবার পূর্ব মেদিনীপুরের কাঁথি শহরে এই আশ্বাস দিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ ৷

তিনি এদিন স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিতে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি বিক্রি নিয়ে কটাক্ষ করেন । তাঁর অভিযোগ, মুখ্যমন্ত্রীর আঁকা ছবি যে কোনও চিত্রকরের থেকেও বেশি দামে বিক্রি হয়েছে৷ তা কিনেছে চিটফান্ডের মালিকরা৷ ফলে তৃণমূল সরকারের পুলিশের পক্ষে কোনও মতেই বেআইনী অর্থলগ্নিকারী সংস্থার মালিকদের ধরা সম্ভব নয়৷জনতাকে উদ্দেশ্য করে এদিন তিনি বলেন, ‘‘মমতা দিদির ছবি কত দামে বিক্রি হয় জানেন? শিল্পীদের ছবি বিক্রি হয় ১০ হাজার, ২০ হাজার, ৫০ হাজার, এক লাখ, ১০ লাখে৷ কিন্তু তৃণমূল নেত্রীর ছবি বিক্রি হয় কোটি কোটি টাকায়৷ সেগুলি কেনেন চিটফান্ডের মালিকরা৷ ফলে এরাজ্যে মমতা দিদি যতদিন আছে ততদিন তাদের গ্রেফতার করা হবে না৷’’ ১৯শের প্রচারে এসে ২১শের ঘুঁটি সাজাচ্ছেন গেরুয়া শিবিরের সর্বভারতীয় সভাপতি৷ লক্ষ্য বাংলায় বদল৷ বাংলা জয়ের লক্ষ্যে অমিত শাহের আশ্বাস, ‘‘বিজেপিকে এরাজ্যে সরকার গঠনের সুযোগ দিন৷ কথা দিচ্ছি, চিটফান্ড কোম্পানির মালিকদের ধরা হবে৷ তাদের থেকে আদায় করা হবে টাকা৷’’ বাম আমলে এইসব চিটফান্ডের উৎপত্তি৷ তাদের রমরমা বাড়ে ২০১১ সালের পর৷ পরে ২০১৩ সালে ফাঁস হয় চিটফান্ড কেলেঙ্কারি৷ প্রতারিত হন লক্ষাধিক মানুষ৷

গেরুয়া শিবিরের চাণক্য উপলদ্ধি করতে পেরেছেন , চিটফান্ড কেলেংকারির ঘটনা বেশ কয়েক বছর আগে ঘটলেও এরাজ্যের প্রতারিতদের মনে এখনও দগদগে ঘায়ের মত হয়ে রয়েছে । তারা এখনও বিশ্বাস করে তাদের কষ্টার্জিত অর্থ ফিরে পাবে । তাই আগামী দিনে ভোটে জিততে লক্ষাধিক প্রতারিতদের দুর্বল মন জয়ের চেষ্টা বলে মনে করা হচ্ছে ।  সেই লক্ষ্যেই চিটফান্ডকে হাতিয়ার করে তৃণমূল সরকারকে নিশানা করেছেন অমিত শাহ।

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment