বিনোদন, সংস্কৃতি ও সাহিত্য 

ইমন চক্রবর্তীর গানে মাতোয়ারা বার্ণপুর উৎসব-২০১৯

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

শেখ আব্দুল মান্নান, বার্ণপুর আসানসোল: দীর্ঘদিন যাবৎ পশ্চিমবঙ্গের দিকে দিকে সংস্কৃতির যে জোয়ার বইছে তার এক প্রকৃষ্ট উদাহরণ ১৫ তম বার্ণপুর উৎসব-২০১৯। গত ২০ জানুয়ারি স্থানীয় হিরাপুর থানা ময়দানে উদ্বোধন হওয়া বিভিন্ন কার্যসূচীর দশ দিনের পনেরতম বার্ণপুর উৎসবের পঞ্চমদিনের (২৪/১/২০১৯) মুখ্য আকর্ষণ ছিল এই সময়ের কলকাতার নামী সঙ্গীত শিল্পী ইমন চক্রবর্তী। স্থানীয় আবৃতি শিল্পী অনুষ্কা সেন ও স্নিগ্ধা সেনের আবৃতি দিয়ে শুরু হওয়া এদিনের সাংস্কৃতিক সন্ধ্যায় রুচিসম্মত একগুচ্ছ সঙ্গীতের ডালি নিয়ে মঞ্চে আসেন ইমন চক্রবর্তী।

ইমনের ডালিতে ছিল যেমন একগুচ্ছ রবীন্দ্র সঙ্গীত, মারফতি গান, লালনগীতি, তেমন ছিল ঝুমুর গান ও আধুনিক গীতি।দুর্গাস্তোত্র দিয়ে শুরু করা তাঁর সঙ্গীতাঞ্জলীর প্রথম নিবেদন জনপ্রীয় রবীন্দ্র সঙ্গীত ‘গ্রামছাড়া ওই রাঙামাটির পথ’। এরপর ফরাসি সঙ্গীতের সুরারোপিত ‘ফুলে ফুলে ঢলে ঢলে বহে কিবা মৃদুবায়,।রাধাকৃষ্ণের প্রেমের গান ‘ তোমারা কুঞ্জ সাজাওগো আজ আমার প্রাণনাথ আসিতে পারে’ গানে উপস্থিত শ্রোতারা যেমন আপ্লুত হয়ে যান তেমনি ‘মিলন হবে কতদিনে আমার মনের মানুষের সনে’ লালনগীতি আর মারফতি ‘দেদে পাল তুলেদে ও তুই হেলা করিসনা,ছেড়েদে মাঝি নৌকো যাবো মদিনা’ গানদুটিও শ্রোতাদের মাতোয়ারা করে দেয়।

এদিন ইমন প্রাণখুলে গায় ভূপেন হাজরিকার দুটি জনপ্রিয় গান- ‘বিস্তীর্ণ দুপারে অসংখ্য মানুষের হাহাকার শুনে নি:সংকোচে নীরবে ও গঙ্গা বইছ কেন’ এবং ‘আজ জীবন খুঁজে পাবি ছুটে ছুটে আয়’। রাঢ় বাংলার দেহাতি মানুষের প্রাণের সুর ঝুমুরের পাশাপাশি রাধারমন গোঁসাইয়ের ‘ভ্রমর কইয়ো গিয়া শ্রীকৃষ্ণের বিচ্ছেদ হইলে অঙ্গ যায় জ্বলিয়া’ গানটি অনুষ্ঠানে অন্যমাত্রা এনে দেয়। যে গান ইমনকে রাষ্ট্রীয় সম্মানে ভূষিত করে বিখ্যাত করে দেয়, শ্রোতাদের অনুরোধে প্রান্তিক সিনেমার সেই জনপ্রিয় গান ‘তুমি যাকে ভালবাসো’ পরিবেশন করে সবাইকে মুগ্ধ করে দেয়।

সঙ্গীত যে মানুষের শোক তাপ ভুলিয়ে মানুষকে অন্যজগতে নিয়ে যেতে পারে, এদিন ইমনের একটানা দেড়ঘন্টার অনুষ্ঠান যেন তার জ্বলন্ত প্রমাণ।ইয়াঙ্কি কালচারে মত্ত নতুন প্রজন্মরাও এদিন ছিল শান্ত সরব। উৎশৃঙ্খলতার লেশমাত্র স্পর্শ করতে পারেনি সমগ্র অনুষ্ঠানে। তাই উপস্থিত শ্রোতাদের ধন্যবাদ জানাতে ভোলেনি ইমন।নগর সভ্যতার উগ্রতার ভূত যে ইস্পাত নগরের সংস্কৃতপ্রিয় মানুষের মনকে গ্রাস করতে পারেনি, এদিনের সর্বাঙ্গসুন্দর ইমনের অনুষ্ঠানই তার প্রমাণ। ইমন এদিন রবীন্দ্র সঙ্গীত দিয়ে শুরু করা তাঁর অনুষ্ঠানের মধুরেন সমাপয়েত ঘটান তাঁর প্রিয় রবীন্দ্র সঙ্গীত ‘আমার হিয়ার মাঝে লুকিয়েছিলে দেখতে আমি পাইনি’ দিয়ে।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment