জেলা 

বিজেপির প্রার্থী তৃণমূলে

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ বিজেপির প্রতীক নিয়ে পুর্ব মেদিনীপুর জেলার কোলাঘাট ব্লকের শান্তিপুর-১গ্রাম পঞ্চায়েতের শান্তিপুর গ্রামে প্রার্থী হয়েছিলেন মীনা ভৌমিক। শনিবার ছিল মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিন। শেষদিনে মনোনয়ন প্রত্যাহার না করেই শনিবার রাতে তৃণমূলের উন্নয়নের কাজে সামিল হওয়ার জন্য তৃণমূলে যোগদান করেন শান্তিপুরের বিজেপি প্রার্থী মীনা ভৌমিক ও তাঁর স্বামী রবীন্দ্রনাথ ভৌমিক সহ তার অনুগামীরা। এদিন রাতে তাদের হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন স্থানীয় তৃণমূল নেতা সেখ সেলিম আলি। জানা গিয়েছে,শান্তিপুর-১গ্রাম পঞ্চায়েতের ১৩নম্বর আসনে তৃণমূল প্রার্থী উমা তুং-র প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন বিজেপি প্রার্থী মীনা ভৌমিক। কিন্তু শাসকদল তথা তৃণমূূূলের উন্নয়ন যজ্ঞে সামিল হওয়ার জন্য নিজের প্রার্থীপদ বিশেষ সমস্যার কারনে তুলতে না পারলেও তিনি লিফলেট করে এলাকার মানুষদের জানিয়ে দেন যে তিনি বিজেপি প্রার্থী নন। মীনাদেবী বলেন,”আমি তৃণমূলে যোগদান করেছি। তৃণমূলের প্রচার ও উন্নয়নে সামিল হয়ে এলাকায় উন্নয়ন করবো। আমাদের পরিবার প্রথম থেকেই তৃণমূলের সাথে যুক্ত। কিন্তু সম্প্রতি স্থানীয় কিছু তৃণমূল নেতা-নেত্রীর কাজে অসন্তুষ্ট হয়ে বিজেপিতে চলে গিয়েছিলাম। নিজের ভুল বুঝতে পেরেই আবার পুরনো দলে ফিরে এসেছি।”বিজেপি’র তমলুক জেলা সাধারণ সম্পাদক নবারুণ নায়কের অভিযোগ,”মীনাদেবী মনোনয়ন জমা দেওয়ার পর থেকেই তৃণমূল কর্মীরা তাঁকে হুমকি দিচ্ছিলেন। শুধু শান্তিপুরে নয়,সারা জেলা জুড়ে বিজেপির প্রার্থীদের হুমকি দিয়ে প্রার্থীপদ প্রত্যাহার করানো বা জোর করে লিখিয়ে নিয়ে তৃণমূলে যোগদান করানো হচ্ছে। যদিও তৃণমূলের দাবি,কাউকে ভয় দেখিয়ে হুমকি দিয়ে মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার করা হয়নি। আবার জোর করে কাউকে দলে নেওয়াও হচ্ছে না। উন্নয়ন যজ্ঞে সবাই সামিল হওয়ার লক্ষ্যে তৃণমূলে যোগদান করছেন।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment