দেশ 

আইপিএসের চাকরি থেকে পদত্যাগ করে নরেন্দ্র মোদীকে অনুরোধ ভার্মার সিবিআই-র স্বাধীনতা রক্ষা করা উচিত , তাহলে চৌকিদার কী স্বাধীনতা হরণ করেছেন ?

শেয়ার করুন
  • 72
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বাধীন হাই পাওয়ার কমিটি গতকালই সিবিআই ডিরেক্টর পদ থেকে সরিয়ে দিয়েছিল অলোক ভার্মাকে । এই সিদ্ধান্তের ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই আইপিএস পদ থেকে পদত্যাগ করে কেন্দ্র সরকার ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে  মোক্ষম জবাব দিলেন তিনি।

শুক্রবার সকালে তিনি  আইপিএস থেকে পদত্যাগ করেন । পদত্যাগ করার পরই তিনি বলেন , সিবিআই এর মতো তদন্তকারী সংস্থার স্বাধীনতাকে রক্ষা করা উচিত। বাইরের কোনও প্রভাব ব্যতিরেকে এর কাজ করা উচিত। এই সংস্থার মর্যাদা ক্ষুণ্ণ করার চেষ্টা হয়েছিল। আমি তা বাঁচানোর চেষ্টা করেছি। তাঁর বদলির নির্দেশকে দুর্ভাগ্যজনক বলে আখ্যা দেন অলোক ভার্মা ।

১৯৭৯ সালের ব্যাচের আইপিএস অফিসার অলোক ভার্মাকে গতকালই প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বাধীন কমিটি বৈঠক করে সিবিআই ডিরেক্টর পদ থেকে সরিয়ে দেন। উল্লেখ্য গত অক্টোবর মাসে তাঁকে বাধ্যতামূলক ছুটিতে পাঠায় প্রধানমন্ত্রীর দফতর । তাঁকে ছুটিতে পাঠানোর বিরুদ্ধে তিনি সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করেন ।সুপ্রিম কোর্টেোয় দিয়ে তাঁকে ছুটিতে সরকার পাঠাতে পারে না বলে স্বপদে বহাল করার পাশাপাশি হাইপাওয়ার কমিটি বৈঠকে ডেকে তাঁর ভবিষ্যৎ সম্পর্কে সিদ্ধান্ত নিতে বলেন ।

গত কাল সেই বৈঠকে কমিটির অন্যতম সদস্য কংগ্রেস নেতা মল্লিকার্জুন খাড়গে তাকে স্বপদে রেখে দেওয়ার পক্ষে মত প্রকাশ করলেও প্রধানবিচারপতির মনোনীত ব্যক্তি ও প্রধানমন্ত্রী তাঁকে স্বপদে রাখতে চাননি । ফলে ২-১ ভোটে তাকে সরিয়ে দেওয়া  হয় । সিবিআই ডিরেক্টর পদ থেকে সরিয়ে দেওয়ার পর তাকে হোমগার্ডের ডিজি পদে বদলি করে দেওয়া হয়। কিন্ত এই দুঁদে আইপিএস শেষ পর্যন্ত পদত্যাগ করে মোদী সরকারকে মুখের উপর জবাব দিলেন । এরপর অলোক ভার্মার মত অফিসার মোদী সরকারের বিরুদ্ধে কী বলেন সেদিকেই তাকিয়ে থাকবে ১২৫ কোটি ভারতবাসী ।

 


শেয়ার করুন
  • 72
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment