কলকাতা 

শিক্ষা ক্ষেত্রে নৈরাজ্য দূর করার পাশাপাশি উচ্চ-শিক্ষার সার্বিক মানোন্নয়নের লক্ষ্যে অধ্যক্ষ ও উপাচার্যদের সঙ্গে সোমবার বৈঠকে বসছেন মুখ্যমন্ত্রী

শেয়ার করুন
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব প্রতিনিধি : শিক্ষা ক্ষেত্রে নৈরাজ্য দূর করার পাশাপাশি কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়গুলির সার্বিক মানোন্নয়নের লক্ষ্যকে সামনে রেখে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী উপাচার্য এবং অধ্যক্ষদের সঙ্গে বৈঠকে বসতে চলেছেন৷ আগামী সোমবার দুপুর দু’টোয় নবান্নের সভাঘরে এই বৈঠক হবে।এই মর্মে বৃহস্পতিবার উচ্চশিক্ষা দপ্তর থেকে উপাচার্যদের কাছে একটি চিঠি পাঠিয়ে ওই বৈঠকে উপস্থিত থাকার আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।
     শিক্ষাঙ্গনে রাজনীতির গতি প্রকৃতি নিয়ে যে তিনি সন্তুষ্ট নয় সেকথা দিন কয়েক আগেই মুখ্যমন্ত্রী পরিষ্কার করে দিয়েছেন ।হিন্দু হোস্টেলের আন্দোলনকে কেন্দ্র করে প্রেসিডেন্সি বিশ্ব বিদ্যালয়ের সমাবর্তন ক্যাম্পাস থেকে  সরিয়ে নিয়ে যাওয়ার প্রসঙ্গ তুলে কলকাতা বিশ্ব বিদ্যালয়ের সমাবর্তনের মঞ্চ থেকে তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করেন। ছাত্র রাজনীতি সৌজন্য হারাচ্ছে বলে মনে করছেন তিনি।
পাশাপাশি গত বছর  ছাত্র ভর্তির মরসুমে যে ভাবে কলেজে কলেজে অশান্তি ছড়িয়েছিল এবার তার পুনরাবৃত্তি রুখতেও সক্রিয় হয়েছেন মমতা। তাঁর দলের ছাত্র নেতাদের একাংশের বিরুদ্ধে টাকা নিয়ে ছাত্র ভর্তি ও দাদাগিরির অভিযোগ ওঠায় ক্ষুব্ধ মুখ্যমন্ত্রী প্রকাশ্যেই ক্ষোভ প্রকাশ করেন।   সেই সমস্যা যাতে নতুন করে এবছরেও মাথাচাড়া না দিতে পারে সে বিষয়ে একাধিক ভাবনাচিন্তা শুরু করেছে উচ্চশিক্ষা দপ্তর৷ দিনকয়েক আগে এক বৈঠক ডেকে শিক্ষামন্ত্রী সিদ্ধান্ত নেন চলতি বছর কলেজে ভরতির ফর্ম তোলা, ভরতি, ভেরিফিকেশন সবই হবে অনলাইনে।
তার পরেও এব্যপারে মুখ্যমন্ত্রী  খোদ কলেজের অধ্যক্ষ এবং বিশ্ব বিদ্যালয়ের উপাচার্যদের মতামত জানতে চান বলে মনে করা হচ্ছে।সম্প্রতি কলেজ শিক্ষক ও উপাচার্যদের অবসরের বয়সেও বাড়ানো হয়েছে। কলেজ শিক্ষকদের অবসরের বয়স ৬২ থেকে বাড়িয়ে করা হয়েছে ৬৫। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যদের অবসরের বয়স বাড়িয়ে ৭০ বছর করা হয়েছে। এব্যপারে সংশ্লিষ্ট  মহলের মতামতও ওই বৈঠকে তিনি খতিয়ে দেখবেন বলে মনে করা হচ্ছে।

শেয়ার করুন
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment