কলকাতা 

ভাগাড়কান্ডে আন্তর্জাতিক যোগ, চাঞ্চল্যকর দাবি ধৃতদের

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ ভাগাড়ের পচা মাংস কান্ডে এবার আন্তর্জাতিক যোগ খুঁজে পেলেন তদন্তকারী অাধিকারিকরা। তাঁদের দাবি, জিজ্ঞাসাবাদে ধৃতরা স্বীকার করেছে, শুধু এদেশেই নয় পচা মাংস রফতানি করা হত বাংলাদেশ ও নেপালেও। ধৃতদের দাবি এই দুই দেশে সস্তা মাংসের চাহিদাই এই কারবারের শ্রীবৃদ্ধি ঘটিয়েছে। জানা গিয়েছে এই মাংস মূলত প্যাকেজড মিট হিসাবেই পৌঁছে দেওয়া হত বিদেশের বাজারে।

কীভাবে চলত এই কারবার? তদন্তকারী আধিকারিকরা ধৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ করে জানতে পেরেছেন ভাগাড়ে পশুর মৃতদেহ পড়লেই খবর পৌঁছে যেত এই ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত লোকেদের কাছে। এর পর তারাই রাতের অন্ধকারে মৃতদেহ তুলে নিয়ে যেত কারখানায়। সেখানেই পিস করা হত ওই মৃত পশুকে। পচন দীর্ঘায়িত করতে বাদ দেওয়া হত চর্বি। এর পর মাংসে নানান রাসায়নিক মিশিয়ে -৪৪ ডিগ্রি উষ্ণতায় ফ্রিজে রাখা হত। কিছুদিন পর ওই মাংসকে গোডাউনে নিয়ে গিয়ে নামি দামি ব্র্যান্ডেরর ছাপ দিয়ে প্যাকেট করা হত। শেষে তা বিক্রির জন্য বিদেশে রফতানি করা হত।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment