কলকাতা 

“ শাট-ডাউন “-এর প্রভাব এবার কলকাতার আমেরিকা সেন্টারে

শেয়ার করুন
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : বেনজির সংকটে আমোরিকার সরকারি কর্মচারিরা । কংগ্রেস অনুমোদন না দেওয়ায় গত অক্টোবর , নভেম্বর ও ডিসেম্বর মাসের মাঝামাঝি সময় কর্মীদের বেতন দেওয়া গেলেও এবং সরকারি অফিস খোলা থাকলেও । গত শনিবার থেকে আমেরিকার অধিকাংশ অফিস বন্ধ হয়ে গেছে ।আমেরিকায় সরকারি অফিসগুলিতে চলছে “শাটডাউন”। মাইনে পাচ্ছেন না সে দেশের প্রায় ৮ লক্ষ সরকারি কর্মী।

এমনকী মহাকাশ গবেষণা কেন্দ্র নাসা-র অধিকাংশ কর্মীকেও ছুটিতে যেতে বলা হয়েছে। আমোরিকার প্রভাব এবার আমাদের রাজ্যেও পড়েছে আপাতত বন্ধ রাখা হয়েছে আমেরিকান সেন্টার। তবে সেন্টারে প্রয়োজনীয় কাজকর্ম চলবে বলে জানিয়েছেন আমেরিকান কনসুলেটের মিডিয়া অ্যাডভাইজা়র শমীক ঘোষ।

সংবাদে প্রকাশ ,মার্কিন কংগ্রেস সেপ্টেম্বর পর্যন্ত যাবতীয় সরকারি খরচ চালানোর অনুমোদন দিয়েছিল ট্রাম্প সরকারকে। কিন্তু তারপর আর খরচ চালানোর অনুমোদন কংগ্রেস না দেওয়ায় সংকটে পড়েছে ট্রাম্প সরকার। অক্টোবর, নভেম্বর ও ডিসেম্বরের মাঝামাঝি পর্যন্ত অফিসগুলির কাজকর্ম চলছিল সঞ্চয়ের অর্থে। কিন্তু সেই অর্থ ফুরিয়ে আসায় গত শনিবার থেকে বন্ধ হতে শুরু করেছে বিভিন্ন সরকারি অফিস। যার জেরে বিশ্বের অন্যান্য দেশেও আমেরিকা  সরকারের একাধিক অফিস বন্ধ রাখা হয়েছে। কলকাতায় আপাতত বন্ধ রাখা হয়েছে আমেরিকান সেন্টার, আমেরিকান সেন্টারের লাইব্রেরি ও ইউনাইটেড স্টেটস ইন্ডিয়া এডুকেশনাল ফাউন্ডেশন ।

শমীকবাবু জানিয়েছেন , “এটা নতুন কিছু নয়। অতীতেও সাময়িকভাবে বন্ধ রাখা হয়েছিল আমেরিকান সেন্টার। কলকাতার আমেরিকান সেন্টার যেহেতু সরাসরি আমেরিকা সরকারের নিয়ন্ত্রণে চলে, তাই অন্য অফিসের মতো আপাতত বন্ধ থাকবে এই সেন্টার। তবে ভিসা ইস্যুর কাজকর্ম চলবে।”


শেয়ার করুন
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment