কলকাতা 

কে. সি .রাও শূন্য হাতে ফিরে গেলেন ; ফেডারেল ফ্রন্ট নিয়ে অবস্থান বদল কী মমতার ?

শেয়ার করুন
  • 14
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বিশেষ প্রতিনিধি : ফেডারেল ফ্রন্ট নিয়ে অবস্থান বদল করতে চলেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ? সোমবার নবান্নে তেলেঙ্গানা মুখ্যমন্ত্রী কে. সি. রাও বৈঠক করেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে । সেখানে জাতীয় রাজনীতির প্রেক্ষিত নিয়ে আলোচনা হয়েছে । মূলত অ-কংগ্রেসী ও অ-বিজেপি দলগুলিকে নিয়ে আলাদা ফ্রন্ট করার লক্ষ্যে ফেডারেল ফ্রন্ট গড়ার তোড়জোড় শুরু করেছিলেন কে.সি.রাও ,নবীন পট্টনায়ক ও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়রা । কিন্ত তিন রাজ্যে বিজেপিকে হারিয়ে এই মুহুর্তে কংগ্রেস দল বিজেপি-র মূল বিরোধী শক্তি হয়ে উঠেছে । তাই বিজেপিকে যদি হারাতে তাহলে একের বদলে এক প্রার্থীর উপর দিচ্ছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় । তাই আজকের বৈঠকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মূলত ফেডারেল ফ্রন্ট নিয়ে জোর দিয়েছেন একের বদলে এক প্রার্থী দেওয়ার । বিজেপিকে দিল্লি থেকে সরাতে মূল লক্ষ্য এখন এটাই তাই আগামী লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির বিরুদ্ধে অভিন্ন প্রার্থী দিতে হবে । তাই বৈঠক শেষে দেখা গেল ,মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে পাশে নিয়ে সাংবাদিক সম্মেলন করে চন্দ্রশেখর রাও বলেন, ধৈর্য্য ধরুন, ভালো খবর অপেক্ষা করছে। তিনি কোনও রাখঢাক না রেখেই বলেন, আমরা দুই রাজ্যের দুই মুখ্যমন্ত্রী আলোচনা করেছি সাম্প্রতিক ও ভবিষ্যৎ রাজনীতি নিয়ে। আমাদের মধ্যে সৌহার্দ্যপূর্ণ আলোচনা হয়েছে। যা আলোচনা হয়েছে, তা ভালোর জন্যই হবে।

আজকের বৈঠকে এটা স্পষ্ট হয়েছে যে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কেসিরাও ও নবীন পট্টনায়কের বিজেপি ঘনিষ্ঠতা পচ্ছন্দ করছেন না । বাংলার রাজনৈতিক প্রেক্ষিতে ফেডারেল ফ্রন্ট করাটা মমতার কাছে অনেকটাই ঝুঁকি হয়ে যাবে । তিন রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনে কংগ্রেসের জয় রাজ্যের সংখ্যালঘু সমাজেও সমান প্রভার পড়েছে । সংখ্যালঘু মনে করছে , বিজেপির বিকল্প এখন কংগ্রেস । তাই এই পরিস্থিতি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ফেডারেল ফ্রন্টের পক্ষে সরব হলে রাজ্যের সংখ্যালঘু সমাজে বিরুপ প্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে।


শেয়ার করুন
  • 14
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment