দেশ 

ইউসুফ পাঠানের বিরুদ্ধে নোটিশ পাঠালো ভাদোদরা মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশন! নেপথ্যে রহস্য?

শেয়ার করুন

বিশ্বকাপ ক্রিকেট জয়ী ক্রিকেটার ইউসুফ পাঠান দীর্ঘদিন ধরে গুজরাটের ভাদোদরায় বাস করছেন এতদিন ধরে তার বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি। কিন্তু তিনি যখনই বহরমপুর থেকে সাংসদ নির্বাচিত হয়ে দিল্লি গেছেন ঠিক তখনই তাঁর কাছে নোটিশ পৌঁছে গেল জমি দখলের।

ভাদোদরা মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশনের তরফে জানানো হয়েছে, নিজের বাড়ি তৈরির সময়ে তার জমির পাশে থাকা আরও একটি জমি কিনতে চেয়েছিলেন ইউসুফ পাঠান। ওই জমিটি রাজ্য সরকারের। প্রতি বর্গমিটারের জন্য ৫৭,০০০ টাকা দিতে চেয়েছিলেন পাঠান বলে জানা গেছে। ২০১২ সালে ভিএমসি-র কাছ থেকে পাঠান এই প্লটটি চেয়েছিলেন।

Advertisement

সেই সময়ে ভিএমসি এই প্রস্তাবে অনুমোদন দিলেও পরবর্তী ক্ষেত্রে রাজ্য সরকার এই জমি সংক্রান্ত ইস্যুতে অনুমোদন দেয়নি। কিন্তু পাঠানের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে, কম্পাউন্ডে দেওয়াল নির্মাণ করে জমিটি দখল করেছেন তিনি। এই প্রেক্ষিতেই তাঁকে নোটিস দেওয়া হয়েছে। গত ৬ জুন এই নোটিস পাঠান হয়েছে বহরমপুরের তৃণমূল সাংসদকে।

ভাদোদরা মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশন বা ভিএমসি আপাতত জানিয়েছে, তারা নোটিসের উত্তর পাওয়ার অপেক্ষা করবে। যদি ইউসুফ পাঠান কোনও জবাব না দেন বা সহযোগিতা না করেন, তাহলে আইন মেনে পরবর্তী পদক্ষেপ করা হবে। যদিও এটাও জানা গেছে, পাঠানের জমি কেনার প্রস্তাব খারিজ করে দেওয়ার পরও ওই নির্দিষ্ট জমিতে কোনও বেড়া বা কাঁটাতার দেওয়া ছিল না।

সদ্য শেষ হওয়া লোকসভা নির্বাচনে বাংলায় বিপুল জয় পেয়েছে তৃণমূল। বাংলার ৪২ আসনের মধ্যে ২৯টিতেই জয় ছিনিয়ে এনেছে তারা। যে কটি আসনে সবথেকে বেশি নজর ছিল তার মধ্যে অন্যতম ছিল বহরমপুর। কারণ এখানে ৫ বারের কংগ্রেস সাংসদ অধীর রঞ্জন চৌধুরীর বিরুদ্ধে দাঁড়িয়েছিলেন ক্রিকেটার ‘আনকোরা’ ইউসুফ পাঠান। তবে ভোটের ফলে বাজিমাত করেছেন তিনিই।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত নিবন্ধ