দেশ 

বিজেপি দলের সংসদীয় কমিটির নেতা হিসাবে নয় এনডিএর নেতা হিসাবে প্রধানমন্ত্রী পদে শপথ নিতে চলেছেন নরেন্দ্র মোদি!

শেয়ার করুন

বিশেষ প্রতিনিধি : ভারতের গণতান্ত্রিক ব্যবস্থায় কোন দল ক্ষমতাসীন হওয়ার পর সেই দলের সংসদীয় কমিটি নেতা নির্বাচন করে থাকে। কিন্তু নরেন্দ্র মোদির ক্ষেত্রে ঠিক উল্টো ঘটনা ঘটে গেল এখানে দলের বৈঠক ডাকাই হলো না। বা দলের সংসদীয় কমিটি কে এড়িয়ে গিয়ে সরাসরি এন ডি এর বৈঠক ডাকা হল। সেখানে বিকাশ সবকা সাত সবকা বিকাশ। না বলে খানিকটা বলা হলো সবকা সাত মোদি কা বিকাশ। নীতিশ কুমার চন্দ্রবাবু নাইডু এবং অন্যান্য সঠিক দল গুলোকে নিয়ে তাদেরকে মঞ্চে বসিয়ে একটি ঘটা করে অনুষ্ঠান করা হলো। যার পোশাকি নাম দেয়া হলো এনডিএ জোটের নেতা নির্বাচন।

এখানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে নরেন্দ্র মোদী সেই একই কায়দায় অহংকারের সুরে কংগ্রেসকে আক্রমণ করলেন। যে অহংকার নরেন্দ্র মোদির দেশবাসী ভেঙে তছনছ করে দিয়েছে তার সত্বেও নরেন্দ্র মোদির কোনোরকম লজ্জা বোধ না করে যেভাবে এন ডি এর বৈঠকে কংগ্রেসকে আক্রমণ করলেন তা এক কথায় নিন্দা জনক বললে অটুক্তি হবে না। তবে এদেশের রাজনৈতিক সম্পর্কে বিশেষজ্ঞ ব্যক্তিদের কাছে অনেকটাই অবাক লেগেছে নরেন্দ্র মোদী কোন কারনে নিজের দলের সংসদীয় কমিটির বৈঠকে না ডেকে এনডিএর বৈঠক ডাকলেন। নিয়ম অনুসারে আগে নিজের দলের সংসদীয় কমিটির বৈঠক দেখে সেখানে দলের পক্ষ থেকে কাকে পরবর্তী নেতা নির্বাচন করা হয় হচ্ছে সেটা ঠিক হয়। তারপরে সেই নেতা জোটের বৈঠক দেখে সেখানে বলবেন যে আমাকে আমার দলের নেতা নির্বাচন করা হয়েছে আপনারা আমাকে সমর্থন করুন।

Advertisement

কিন্তু নরেন্দ্র মোদি এক্ষেত্রে কিছুই করলেন না। এমনকি আরএসএস এর মত সংগঠনের নেতাদেরও এড়িয়ে গিয়ে আজকের বৈঠকে কার্যত তিনি স্পষ্ট বার্তা দিলেন যে তাদের আর আরএসএসকে প্রয়োজন নেই। মনে করা হচ্ছে এই মুহূর্তে বিজেপির সংসদীয় দলের বৈঠক ডাকা হলে অনেকটাই সমস্যায় পড়বেন নরেন্দ্র মোদি।

এমনও হতে পারে নরেন্দ্র মোদিকে প্রধানমন্ত্রী হওয়ার অনুমোদন তার দল বাতিল করে দিতে পারে। বিজেপি দলের অন্য কোন নেতাকে সামনে এনে প্রধানমন্ত্রী পদে বসানো হতে পারে। কিন্তু যেভাবে নরেন্দ্র মোদি একনাক তন্ত্রের কায়দায় নিজেকে এনডিএ জোটের নেতা হিসাবে প্রতিষ্ঠা করলেন তা সবাইকে অবাক করেছে। তবে দলের সংসদীয় কমিটির বৈঠক ডাকা হলে তাতে যে নরেন্দ্র মোদীকে কোন ঠাসা করা হবে তা নিয়ে কোন সন্দেহ নেই। এ কথা ঠিকই আজ সংসদীয় দলের বৈঠক না ডাকলেও বৈঠকের মুখোমুখি হতেই হবে নরেন্দ্র মোদিকে সেক্ষেত্রে বিজেপির নেতারা তাকে কিভাবে রিয়েক্ট করেন সেটাই এখন দেখার।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত নিবন্ধ