কলকাতা 

মমতার ১৯-এর সভায় সোনিয়া গান্ধী কী থাকবেন ?

শেয়ার করুন
  • 17
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব প্রতিনিধি : দিল্লি থেকে বিজেপি সরকারকে সরানোর লক্ষ্যে তৃণমূল কংগ্রেসের ডাকে কলকাতার ব্রিগেডে যে সমাবেশের আয়োজন করা হয়েছে সেই সমাবেশে দেশের সব বিজেপি বিরোধী দলকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় । এই সমাবেশ থেকে বিজেপি বিরোধী জোটের যাত্রা শুরু হবে বলে রাজনৈতিক মহল আশা করছে । কিন্ত ইতিমধ্যে সিপিএম দলের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে তাদের কেউ ওই সমাবেশে থাকবে না । তাদের বক্তব্য বিজেপি বিরোধিতার জন্য তৃণমূল মঞ্চে যাওয়ার প্রয়োজন নেই । তবে থাকবেন চন্দ্রবাবু নাইডু এবং কেসিরাও । আগামী সোমবার তেলেঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী কেসিরাও কলকাতায় আসছেন ।

তিনি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠক করবেন । অন্যদিকে জম্মু-কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ফারুক আবদুল্লাহও কলকাতায় এক সেমিনারে এসেছিলেন । তিনি মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করে তার ভূয়শী প্রশংসা করেন । আবার ভারত চেম্বার্স অফ কর্মাসের সভার শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে ফারুক আবদুল্লাহ রাহুল গান্ধীর প্রশংসা করেন । তিনি বলেন, বিজেপি বিরোধী প্রধান মুখ হলেন রাহুল গান্ধী ।

এই প্রেক্ষাপটেই সোমবার কলকাতায় আসছেন কেসিরাও । শোনা যাচ্ছে , ফেডারেল ফ্রন্ট গড়ার লক্ষ্যেই মমতার সঙ্গে বৈঠকে বসছেন কেসিরাও । আর ফেডারেল ফ্রন্টকে বিজেপি বিরোধী দলগুলির অধিকাংশই মনে করে এরা আলাদা ফ্রন্ট করে ভোটে লড়লে বিজেপির ই সুবিধা হবে ।

শনিবার রাহুল-সোমেনের বৈঠকে নাকি এই প্রসঙ্গ উঠেছে । সেখানে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীকে অনুরোধ করেছেন যেন ১৯ জানুয়ারি তৃণমূলের ডাকা ব্রিগেড সভাবেশে সোনিয়া গান্ধী সহ দলের কোনো গুরুত্বপূর্ণ নেতা উপস্থিত না থাকেন । সোমেন মিত্র পরিসংখ্যান তুলে রাহুল গান্ধীকে জানিয়েছেন তৃণমূল কংগ্রেস কিভাবে রাজ্যের কংগ্রেস কর্মীদের উপর অত্যাচার করে চলেছে ।

জানা গেছে , সোমেন মিত্র এও বলেছেন জাতীয় ক্ষেত্রে বাধ্যবাধকতার স্বার্থে যদি ওই সভায় কংগ্রেসকে যেতে হয় তাহলে যেন কোনো ওজনদার নেতাকে পাঠানো না হয় ।প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি এই অনুরোধে রাহুল গান্ধী বিষয়টি দেখবেন বলে জানিয়েছেন । তবে সোনিয়া গান্ধী আসবেন কি না সে বিষয়ে কোনো স্পষ্ট বার্তা তিনি দেননি বলে জানা গেছে ।

এদিকে বিশেষ সূত্রে জানা গেছে , তৃণমূলের সভায় সোনিয়া কিংবা রাহুল আসবেন বলে এখনও পর্যন্ত এআইসিসি থেকে তৃণমূলকে কোনো বার্তা পাঠানো হয়নি । তবে এটা ঠিক মমতার সভাকে যদি সোনিয়া-রাহুল এড়িয়ে যেতে পারেন তাহলে আগামী দিনে কংগ্রেস এই রাজ্যে আরও বেশি চাঙ্গা হবে বলে রাজনৈতিক মহল মনে করছে ।


শেয়ার করুন
  • 17
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment