দেশ 

২৯৫ টি আসন নিয়ে ক্ষমতায় আসছে ইন্ডিয়া জোট বৈঠকের পর দাবি নেতাদের

শেয়ার করুন

বাংলার জনরব ডেস্ক : কমপক্ষে ২৯৫ তেই আসন পেয়ে ইন্ডিয়া জোট দিল্লির মসনদে বসতে চলেছে। আজ শনিবার পয়লা জুন শেষ দফার নির্বাচনের দিন দিল্লিতে ইন্ডিয়া জোটের সমস্ত শরিক দলের বৈঠক বসেছিল। সেই বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের সামনে জোটের সব নেতারা একযোগে দাবি করেন ২৯৫ টি আসন পেয়ে তারাই ক্ষমতায় আসছেন। নরেন্দ্র মোদি সরকার প্রাক্তন সরকারের পরিণত হয়ে যাবে।

এ দিন ইন্ডিয়া জোটের বৈঠকের পর এমনই দাবি করেছেন কংগ্রেস সভাপতি মল্লিকার্জুন খাড়গে৷ তাঁর দাবি, সাধারণ মানুষের থেকে ইন্ডিয়া জোটের নেতারা যে তথ্য পেয়েছেন, তার ভিত্তিতেই এই দাবি করছেন তাঁরা৷

Advertisement

মল্লিকার্জুন খাড়গে বলেন, ‘কোনও বিভ্রান্তি নেই, বিজেপি শুধুমাত্র একটা ধারণা ছড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করছে৷ কিন্তু সত্যিটা আমরা দেশবাসীর সামনে তুলে ধরতে চাই৷ আমাদের হিসেব বলছে, ইন্ডিয়া জোট অন্তত ২৯৫টি আসনে জয়ী হতে চলেছে৷ এই সংখ্যা আরও বাড়তে পারে, কিন্তু কমবে না৷ আমাদের জোটের সব নেতাদের সঙ্গে কথা বলেই আমরা এই দাবি করছি৷’

এ দিন দিল্লিতে মল্লিকার্জুন খাড়গের বাড়িতে বৈঠকে বসেছিলেন ইন্ডিয়া জোটের নেতারা৷ যদিও এই বৈঠকে অংশ নেননি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অথবা তৃণমূলের কোনও প্রতিনিধি৷

কংগ্রেস সভাপতি অবশ্য আরও দাবি করেছেন, ইন্ডিয়া জোটের সব শরিক দল ঐক্যবদ্ধই রয়েছে৷ খাড়গের কথায়, ‘আমরা ঐক্যবদ্ধ আছি এবং থাকব৷ আমাদের মধ্যে ফাটল ধরানোর চেষ্টা করবেন না৷’

দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল দাবি করেছেন, ‘সব জায়গা থেকে তথ্য নিয়েই বলছি, ইন্ডিয়া জোট ২৯৫-এর বেশি আসন পাবে৷ বিজেপি ২২০-র কাছাকাছি আসন পেতে পারে, এনডিএ ২৩৫টির মতো আসন পাবে৷ ইন্ডিয়া জোট শক্তিশালী সরকার গড়তে চলেছে৷’

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় উপস্থিত না থাকলেও এ দিন দিল্লিতে ইন্ডিয়া জোটের বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন অরবিন্দ কেজরিওয়াল, সীতারাম ইয়েচুরি, অখিলেশ যাদব, তেজস্বী যাদব, উদ্ধব ঠাকরে,শরদ পাওয়ারের মতো বিরোধী জোটের শরিক দলগুলির গুরুত্বপূর্ণ নেতারা৷ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অবশ্য আগেই জানিয়েছিলেন, ১ জুন পশ্চিমবঙ্গে শেষ দফার ভোট থাকায় তিনি ইন্ডিয়া জোটের বৈঠকে অংশ নিতে পারবেন না৷ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন রাহুল গান্ধি, সনিয়া গান্ধিও৷

বৈঠক শেষে আরজেডি নেতা তেজস্বী যাদব বলেন, ‘আমরা ২৯৫-এর বেশি আসনে জিতছি৷ বিজেপি-র চারশোর বেশি আসনে জয়ী হওয়ার যে সিনেমা, সেটা প্রথম দফার ভোটের পরই ফ্লপ হয়ে গিয়েছে৷’

 


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত নিবন্ধ