কলকাতা 

আগামী  মাসের মধ্যেই কলকাতায়  টেলিফোন, বিদ্যুৎ-সহ বিভিন্ন সংস্থার সংযোগ মাটির তলায় লাইন পাতার কাজ শেষ করার নির্দেশ ফিরহাদের

শেয়ার করুন
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব প্রতিনিধি : মেয়র ফিরহাদ হাকিম আগামী  মাসের মধ্যেই কলকাতায়  টেলিফোন, বিদ্যুৎ-সহ বিভিন্ন সংস্থার সংযোগ লাইন মাটির তলায় পাতার কাজ শেষ করার নির্দেশ দিয়েছেন।  পুরভবনে  রাজ্য পরিবেশ দপ্তর,   সিইএসই টেলিফোন,  কেবল সংস্থার আধিকারিক সহ পুরসভার জল, নিকাশি ও রাস্তা বিভাগের পদস্থ আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠকের পর মেয়র সাংবাদিকদের একথা জানান। তিনি বলেন, এখন  থেকে প্রতিটি বোরো’র ইঞ্জিনিয়ারদের সঙ্গে বসে কোন রাস্তা খুঁড়ে লাইন পাতা হবে সেই বিষয়ে পরিকল্পনা তৈরি করতে বলা হয়েছে।

ফেব্রুয়ারি মাস থেকে মাটি খোঁড়াখুঁড়ির ফলে ক্ষতিগ্রস্থ রাস্তাগুলি মেরামতের কাজ শুরু হবে। তিনি আরো বলেন, বিভিন্ন পরিষেবাদানকারী সংস্থা-সহ পুরসভার জল, নিকাশির নতুন লাইন পাতা বা পুরোনো লাইন মেরামতের জন্য যাতে আগামী দিনে রাস্তা খুঁড়তে না হয় এ’জন্য শহরের তিনটি রাস্তায় মাটির তলায় বিভিন্ন সংস্থার লাইন পাতার জন্য  ও মাটির উপরে কেবল লাইন নিয়ে যাওয়ার জন্য ফুটপাতের উপর নির্দিষ্ট টানেল করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এলগিন রোড, আলিপুর রোড ও হরিশ মুখার্জী রোডে পরীক্ষামূলক ভাবে রাস্তার দুই ধারের  ফুটপাতে এই বিশেষ টানেল করা হবে। এই পদক্ষেপ সফল হলে শহরের যে রাস্তাগুলির ফুটপাত চওড়া সেখানে টানেল করার উদ্যোগ নেওয়া হবে। ছোট রাস্তাগুলির ক্ষেত্রে মাথার উপর কেবল লাইনগুলি সুবিন্যস্ত করে দেওয়া হবে।

অন্যদিকে, জাতীয় পরিবেশ আদালতের নির্দেশ মেনে শহরের হটমিক্স প্ল্যান্টগুলি পরিবেশ বান্ধব করে তুলতে কি কি যন্ত্র বসানোর প্রয়োজন এই ব্যাপারে রাজ্য দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদ পুরসভাকে পরামর্শ দেবে বলে মেয়র জানান। সময়ের অভাবে নতুন যন্ত্র বসানোর জন্য টেন্ডারের বদলে, সংস্থা মনোনয়ন করা হবে বলে ফিরহাদ হাকিম জানিয়েছেন। এইসব  যন্ত্র বসানোর পর প্ল্যান্টটি পরিবেশবান্ধব হল কিনা তা দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদ পরীক্ষা করে শংসাপত্র দেবে। সেই শংসাপত্র আদালতে তারা জমা দেবেন বলে মেয়র জানান। এদিকে শহরে একটি নির্দিষ্ট স্থানে ম্যাস্টিক এসফল্ট তৈরি করে শহরের সব রাস্তা তৈরির জন্য যাতে নিয়ে যাওয়া হয় সেই পরিকল্পনাও পুরসভা গ্রহণ করছে। কেন্দ্রীয় ভাবে ম্যাস্টিক প্ল্যান্ট করার উদ্দেশ্যে ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ডিজি,  পি কে ধুয়া  ও  রাস্তা বিভাগের ডিজি সৌমিত্র ভট্টাচার্যকে চেন্নাই, মুম্বাই ও পুনেতে পাঠানো হচ্ছে বলে মেয়র জানিয়েছেন


শেয়ার করুন
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment