কলকাতা 

মুখ্য সচিবের কর্মজীবন বৃদ্ধিতে সবুজ সংকেত দিল কেন্দ্র!

শেয়ার করুন

বাংলার জনরব ডেস্ক : মমতা সরকারের আবেদন মেনে রাজ্যের মুখ্য সচিব ভগবতী প্রসাদ গোপালিকার কর্মজীবন আরও তিন মাস বৃদ্ধি করল কেন্দ্রীয় সরকার। লোকসভা ভোটের প্রক্রিয়া চলাকালীন সময়ে কেন্দ্রীয় সরকারের এই সিদ্ধান্ত নিঃসন্দেহে তাৎপর্যপূর্ণ। এর আগে বঙ্গ সন্তান প্রাক্তন মুখ্য সচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের কর্মজীবনের মেয়াদ বাড়ালেও তাকে মুখ্য সচিব পদে রাখতে রাজি হয়নি কেন্দ্রীয় সরকার। এমনকি বঙ্গসন্তান আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রতি প্রতিহিংসা পরায়ণ আচরণ করেছে কেন্দ্র সরকার। কিন্তু ব্যতিক্রম দেখা গেল লোকসভা নির্বাচন চলাকালীন সময়েও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় রাখার লক্ষ্যেই কি এবার মোদি সরকার এই সিদ্ধান্ত নিল! নাকি নির্বাচন চলাকালীন সময়ে সরকারি সমস্ত সিদ্ধান্ত যেহেতু নির্বাচন কমিশনের হাতে থাকে তাই এই ধরনের সিদ্ধান্ত নিতে খুব একটা অসুবিধা হয়নি কেন্দ্রীয় সরকারের আমলাদের!

আগামী ৩১ মে মুখ্যসচিব পদ থেকে অবসর নেওয়ার কথা ছিল গোপালিকের। কিন্তু, ১ জুন সপ্তম দফার ভোট রয়েছে। ৪ জুন ভোটগণনা। এই পরিস্থিতিতে মুখ্যসচিবের মতো সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ পদে নতুন কাউকে বসানো ঠিক হবে না বলে মনে করছে রাজ্য। তাই তাঁর মেয়াদবৃদ্ধির জন্য গত ২৬ ফেব্রুয়ারি আবেদন জানানো হয়েছিল নরেন্দ্র মোদী সরকারের কাছে।

Advertisement

‘কর্মিবর্গ, জন অভিযোগ, পেনশন এবং প্রশিক্ষণ মন্ত্রক’-এর আন্ডার সেক্রেটারি কবিতা চৌহান সোমবার রাজ্যের অতিরিক্ত মুখ্যসচিবকে পাঠানো চিঠিতে লিখেছেন, ‘‘রাজ্যের প্রস্তাব মেনে মুখ্যসচিব বিপি গোপালিকের কর্মজীবনের মেয়াদ ৩১ অগস্ট পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে।’’ প্রসঙ্গত, ভোটের আগে রাজ্য পুলিশের ডিজি পদ থেকে রাজীব কুমারকে সরিয়ে দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। তাঁর জায়গায় প্রথমে অস্থায়ী ডিজি হয়েছিলেন বিবেক সহায়। কিন্তু ভোটের মধ্যে তাঁর অবসরের দিন হওয়ায় বিবেককে সরিয়ে সঞ্জয় মুখোপাধ্যায়কে ডিজি হিসেবে নিয়োগ করেছে কমিশন। তবে ভগবতীপ্রসাদের ক্ষেত্রে তেমন কোনও পদক্ষেপ করা হয়নি।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত নিবন্ধ